রাজবাড়ীতে করোনা সংক্রমন রোধে চলছে দ্বিতীয় দফা লকডাউন –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

করোনা সংক্রমন রোধে দ্বিতীয় দফা লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে সরকারের নির্দেশ বাস্তবায়নে রাজবাড়ীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অভিযান পরিচালনা করছে জেলা পুলিশ। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন এলাকায় পরিচালনা করা হয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।


বৃহস্পতিবার দিনভর রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার এমএম শাকিলুজ্জামানের নেতৃত্বে জেলা শহরসহ জেলা বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় সড়কে চলাচলরত পন্যবাহি ট্রাক, প্রাইভেটকার, মোটর সাইকেল, অটোরিক্সাসহ সাধারণ মানুষের ঘরের বাইরে আসার কারণ জানতে চাওয়া হয়। কিছু যানবাহনকে জরিমানা ও অন্যান্যদের সতর্ক করে বিনা কারণে বাইরে না আসতে নিষেধ করে ফেরত পাঠানো হয়।

রাজবাড়ী শহরে খোলা রয়েছে ওষুধ ও ফলের দোকান। যদিও রাজবাড়ী শহরের ১ নং রেলগেট ও তার দু’পাশ, নতুনবাজার এবং বড়পুলের প্রবেশ পথ বাঁশ দিয়ে আটকে দেয়া হয়েছে। অন্যদিকে ডাক্তারের কাছে আসা, বাজার করা সহ নানা অজুহাতে রাস্তায় কিছু মানুষের চলাচল করতে দেখা গেছে।

##### চলাচলে যাদের মুভমেন্ট পাস প্রয়োজন নেই ######

করোনাকালে চলাচল ও কার্যক্রমের কঠোর নিয়ন্ত্রনের মধ্যে বিধি-নিষেধের আওতামুক্ত ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানসমূহঃ*
১। ডাক্তার
২। নার্স
৩। মেডিকেল স্টাফ
৪। কোভিড টিকা/চিকিৎসার সাথে জড়িত ব্যক্তি/স্টাফ
৫। ব্যাংকার
৬। ব্যাংকের অন্যান্য স্টাফ
৭। সাংবাদিক
৮। গণমাধ্যমের ক্যামেরাম্যান
৯। টেলিফোন/ইন্টারনেট সেবাকর্মী
১০। বেসরকারী নিরাপত্তাকর্মী
১১। জরুরি সেবার সাথে জড়িত কর্মকর্তা/কর্মচারী
১২। অফিসগামী সরকারী কর্মকর্তা
১৩। শিল্প কারখানা/গার্মেন্টস উৎপাদনে জড়িত কর্মী/কর্মকর্তা
১৪। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য
১৫। ফায়ার সার্ভিস
১৬। ডাকসেবা
১৭। বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস ও জ্বালানির সাথে জড়িত ব্যক্তি/কর্মকর্তা
১৮। বন্দর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি/কর্মকর্তা
এদের চলাচলে মুভমেন্ট পাস প্রয়োজন নেই। তাঁরা শুধু পরিচয়পত্র প্রদর্শন করে কর্মস্থলে আসা-যাওয়া করতে পারবেন।
আজকে ‘জরুরি অফিস’ খোলার দিন হওয়ায় অনেক চলাচল বাড়বে। উপরোক্ত ব্যক্তিগণ যাতে পুলিশের চেকপোস্টে পরিচয়পত্র প্রদর্শন করে কর্মস্থলে যেতে পারেন, এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা নেয়ার জন্য অনুরোধ করছি।
মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশন্স
বাংলাদেশ পুলিশ, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স

(Visited 28 times, 1 visits today)