ঢাকাMonday , 15 August 2022

একযুগ পর সিজারিয়ান অপারেশন, গোয়ালন্দে শোক দিবসে আরেক রাসেলের জন্ম 

Link Copied!

শামীম শেখ, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 

১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস। দীর্ঘ ১২ বছর পর রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে চালু হলো সিজারিয়ান অপারেশন কার্যক্রম।  এ দিন দুপুর পৌনে দুইটায় সফল সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে জন্ম নেয় একটি শিশু পুত্র।

শিশুটির নাম রাখা হয়  সাহাদাৎ হোসেন রাসেল। বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলকে স্মরন করে তার প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালবাসা স্বরুপ  শিশুটির এ নামকরন করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সৈয়দ আমিরুল হক শামীম এ নামকরন করেন।

আলাপকালে ডাঃ আমিরুল হক শামীম জানান, ১৯৭৫ সালে আজকের এ দিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যের সাথে ঘাতকরা নির্মমভাবে হত্যা করে বঙ্গবন্ধুর ছোট্ট শিশু পুত্র শেখ রাসেলকেও।

আজ দীর্ঘ প্রায় ১২ বছর পর আমাদের হাসপাতালে সফলভাবে  সিজারিয়ান অপারেশন করা হলো।এটা আমাদের সবার কাছে অনেক আনন্দের বিষয়।তবে দিনটি শোক দিবস হওয়ায় আমি নিজেই সদ্যোজাত শিশুটির নাম শেখ রাসেলের সাথে মিল রেখে নামকরন করেছি। শিশুটির বাবা আমানত মোল্লা, মা শারমিন আক্তারসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা এতে খুব খুশি হয়েছেন। তাদের বাড়ি গোয়ালন্দ উপজেলার সীমান্তবর্তী রাজবাড়ী সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের কাচরন্দ গ্রামে। 

আমানত মোল্লা বলেন, প্রথম দিকে কিছুটা নার্ভাস ছিলাম। কিন্তু একানকার অভিজ্ঞ ডাঃ ও নার্সদের প্রচেষ্টায় আমার সন্তান সুস্থ্য -সুন্দরভাবে জন্ম নিয়েছে। আমার স্ত্রী-সন্তান উভয়ই ভালো আছে।আমি এতেই খুশি।মহান সৃষ্টিকর্তা ও অপারেশনের সাথে জড়িত সকলের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। তার উপর বড় ডাক্টার স্যার বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ ছেলের নামের সাথে মিল রেখে আমার ছেলের নামকরন করেছেন। এতে আমরা খুব খুশি। সবার কাছে আমি আমার সন্তানের জন্য দোয়া চাই।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শাহ মোঃ শরিফ বলেন, নানা সমস্যার কারনে এখানকার অপারেশন থিয়েটারে এতদিন তেমন একটা  কার্যক্রম ছিল না। কিছুদিন আগে আমরা ছোটখাট অপারেশন শুরু করি।আজ সফলভাবে সিজারিয়ান অপারেশন করা হলো। এটা দরিদ্রতম এ এলাকার জন্য অনেক ভালো একটা সুযোগ। 

 হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (গাইনি এন্ড অবস) সার্জন তৃপ্তি সরকার,জুনিয়র কনসালটেন্ট (এনেস্থিসিয়া) ডাঃ প্রদীপ কান্তি পাল,সহকারী সার্জন নাজনীন নাহান নীরা ও স্টাফ নার্স হোসনে আরা সিজারিয়ান অপারেশনে যোগ দেন। এখন থেকে এখানে নিয়মিত সিজারিয়ান সহ ছোটখাট সকল ধরনের অপারেশন করা হবে বলে তিনি জানান।

(Visited 95 times, 1 visits today)