ঢাকাTuesday , 6 September 2022

মহিলা পরিষদের উদ্যোগে রাজবাড়ীতে সিডও কমিটির সমাপনী মন্তব্য বাস্তবায়ন পর্যালোচনা সভা

Link Copied!

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ রাজবাড়ী জেলা শাখার উদ্যোগে সিডও কমিটির সমাপনী মন্তব্য বাস্তবায়ন পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন, রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান।


মঙ্গলবার দুপুরে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলোনায়তনে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ রাজবাড়ী জেলা শাখার সভাপতি ডাঃ পূর্ণিমা দত্ত।


বিশেষ অতিথি ছিলেন, সদর উপজেলা নির্বাহি অফিসার মার্জয়া সুলতানা, জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রুবাইয়াত মোঃ ফেরদৌস, জেলা মহিলা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আজমীর হোসেন, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের কেন্দ্রীয় নেত্রী এ্যাডঃ দেবাহুতি চক্রবর্তী, সাবেক শিক্ষা অফিসার সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ রাজবাড়ী শাখার সাবেক সভাপতি লাইলী নাহার, সাধারণ সম্পাদক ক্রিষ্টিনা মারিও রেখা দাসনহ অন্যান্যরা।


উল্লেখ্য, ১৯৭৯ সালের ১৮ ডিসেম্বর জাতিসংঘের সাধারন পরিষদে নারীর প্রতি সব ধরনের বৈষম্য বিলোপ সনদ (সিডিও) গৃহীত হয়। জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্র গুলোর স্বাক্ষরের মাধ্য দিয়ে ১৯৮১ সালের ৩ সেপ্টেম্বর থেকে সনদটি কার্যকর হতে শুরু করে, এরপর থেকেই এই সনদে স্বাক্ষরকারী দেশ গুলো প্রতি বছরের ৩ সেপ্টেম্বর কে আন্তর্জাতিক সিডও দিবস হিসেবে পালন করে।

নারীর প্রতি সকল প্রকার বৈষম্য বিলোপ সনদ (সিডও) নারীর মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য নিয়ে ১৯৭১ সালের ১৮ ডিসেম্বর জাতিসংঘের সাধারন পরিষদে গৃহীত হয়। ১৯৮১ সালের ৩ সেপ্টেম্বর থেকে সনদটি কার্যকর হতে শুরু করে। এ পর্যন্ত ১৮৫ টিরও বেশি দেশ সিডও সনদ গ্রহন করেছে। এদের মধ্যে প্রায় ১৬০টি দেশ সিডও সনদের ধারা গুলো তাদের জাতীয় সংবিধান ও আইনে যুক্ত করার উদ্দ্যেগ নিয়েছে। এই স্বাক্ষরকারী দেশ সমূহের মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। পুরুষের পাশাপাশি নারীকে সামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কুতিক প্রভৃতি পরিমন্ডলে সম্পৃক্ত করা তথা সমান অধিকার প্রদান করাই সিডও এর মূল লক্ষ্য।

(Visited 51 times, 1 visits today)