ঢাকাSunday , 14 August 2022

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাজবাড়ীর এমপি কাজী কেরামত আলীর বাণী

Link Copied!

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :  

১৫ ই আগস্ট বাঙ্গালী জাতির ইতিহাসে এক কলঙ্কজনক দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে তার পরিবারের প্রায় সকল সদস্যসহ হত্যা করা হয়। এই হত্যাকান্ডের মধ্যে দিয়ে ঘাতকের দল দেশকে মুক্তিযুদ্ধের বিপরীত ধারায় চালিত করতে চেয়েছিল। স্বাধীনতা বিরোধী চক্র জাতির পিতাকে হত্যা করে দেশের অসাম্প্রদায়িক চরিত্রকে ধ্বংস করে। তারা কেবল জাতির পিতাকে হত্যা করেই ক্ষ্যান্ত হয়নি, নিপীড়ন চালিয়েছিল মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির ওপর। সামরিক শাসকেরা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদেরকে পুরুষ্কৃত করে। ১৫ই আগস্টের এই শোকাবহ ঘটনা বাঙ্গালী জাতিকে নিমজ্জিত করে গভীর অন্ধকারে। মুক্তিকামী দেশবাসী হারায় তাদের অবিসংবাদিত নেতাকে ।


১৫ই আগস্ট ব্যক্তি শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হলেও প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী তার সংগ্রামী চেতনাকে ধ্বংস করতে পারেনি। সাময়িকভাবে দেশকে উল্টো দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টাও সফল হয়নি।


যুদ্ধ বিধ্বস্ত স্বাধীন বাংলাদেশ যখন বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে, সে সময় চক্রান্তকারী ঘাতকেরা বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করে তাঁর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্নকে ধূলিসাৎ করতে চেয়েছিল, তাঁর আদর্শের মৃত্যু ঘটাতে চেয়েছিল, কিন্তু তারা তা পারেনি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে দ্রুতগতিতে ধাবমান, ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হবার সংকল্পে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

শোকাবহ এদিনে আমি গভীর ভাবে শ্রদ্ধা জানাই স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর পরিবারের সকল শহিদের স্মৃতির প্রতি। একই সাথে পরম করুণা ময়ের কাছে সে দিনের সকল শহিদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করি। আসুন, শোককে শক্তিতে পরিণত করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও দেশ প্রেমের আদর্শে উজ্জীবিত একটি সুখী, সমৃদ্ধ, উন্নত ‘সোনার বাংলা’ বিনির্মাণে সকলে আত্ম নিয়োগ করি। জয়বাংলা জয়বঙ্গবন্ধু।

(কাজী কেরামত আলী)
জাতীয় সংসদ সদস্য, রাজবাড়ী-১ আসন,
সাবেক প্রতিমন্ত্রী
কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ
শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

(Visited 10 times, 1 visits today)