রাজবাড়ীতে সরকারী অফিস ভেঙ্গে ২ কোটি টাকার জমি দখল করে রাস্তা তৈরীর চেষ্টা: শর্ত সাপেক্ষে ৩ নেতার জামিন! –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ী রেলষ্টেশন সংলগ্ন কুলিপট্টিতে থাকা রেলওয়ের স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরের অফিস ভেঙ্গে প্রায় দুই কোটি টাকার জমি দখল করে রাস্তা তৈরীর চেষ্টা করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাজবাড়ী জেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটির সদস্য ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এমএ খালেক, তার ছেলে ও রাজবাড়ী জেলা ছাত্র দলের সাধারণ সম্পাদক এমএ খালেদ পাভেল এবং জেলা যুবলীগের যুগ্ন-আহবায়ক ও রাজবাড়ী পৌরসভার ৮নং ওযার্ড কাউন্সিলর শাহ মোঃ জাহাঙ্গীর জলিলসহ অজ্ঞাত নামা আরো ২০/২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। সেই সাথে বৃহস্পতিবার দুপুরে তারা একাধিক স্থানে রেল পুতে ওই জমির দখল পুনঃউদ্ধার করেছে।


মামলার বাদী ও রাজবাড়ী রেলওয়ের উপসহকারী প্রকৌশলী (কার্য) সাইফুল ইসলাম জানান, রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরের অফিসের পেছনে প্রায় ২০০ গজ দুরে এমএ খালেকের বাস ভবন রয়েছে। ওই ভবনে আসা যাওয়ার রাস্তাও আছে। তার পরও ৭ জুন থেকে পর্যায়ক্রমে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা রাতের আঁধারে বালু ফেলে ও কিছু স্থাপনা ও গাছ সড়িয়ে বিকল্প ও ১৭ ফুট চওড়া করে প্রশস্ত আরেকটি রাস্তা তৈরীর চেষ্টা শুরু করে। তারা শুরু থেকেই ওই রাস্তা তৈরীতে বাঁধা দেন এবং রেল পুতে দেন। তার পরও কতিপয় ব্যক্তিরা গত ৯ জুলাই রাত ২টার দিকে রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরের অফিসের দেয়াল ও ছাদের ৩ ভাগের ১ ভাগ ভেঙ্গে ৫ লাখ টাকার ক্ষতির পাশাপাশি এবং বালু দিয়ে সেখানে প্রায় ২ কোটি টাকা মূল্যের জমি দখল করে রাস্তা তৈরী করে। যে কারণে তিনি রাজবাড়ী থানায় ওই তিন জনসহ অজ্ঞাত নামা ২০/২৫ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামিরা গত বৃহস্পতিবার রাজবাড়ী আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। আদালত ওই আবেদন বিবেচনা করার পাশাপাশি স্বর্ত স্বাপেক্ষ তাদের ১৫ দিনের জন্য জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন এবং পরবর্তি ধার্য তারিখে বাদীসহ আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করতে বলেছেন।


রেলওয়ে রাজবাড়ীর সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী গৌতম বিশ্বাস জানান, রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরের অফিসের পাশ দিয়ে কোন রাস্তা ছিলো না। ওই অফিসের পেছনে একটা টিউবওয়েল ছিলো যেখানে ওই অফিসের ষ্টাফসহ স্থানীয়রা পানি আসতে যেতেন। অথচ পায়ে হাটা টিউবওয়েল পর্যন্ত পথকে রাস্তা হিসেবে উল্লেখ করা হচ্ছে। যে কারণে তারা সরজমিনে একাধিকবার দখলদারদের নিষেধ করলেও তারা তাদের কথায় কর্ণপাত করেন নি বরং তারা রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরের অফিসের একটি রুম ভেঙ্গে জমি দখল করেছে। যে কারণে তারা বৃহস্পতিবার একাধিক স্থানে রেলপুতে সরকারী জমি পুনঃউদ্ধার করেছেন। তিনি আরো বলেন, মামলা দায়েরের পর আসামিদের পক্ষে কতিপয় ব্যক্তিরা গত বুধবার বাদীর অফিসে এসে হুমকি ধামকি প্রদান করেছে। ফলে বাদীসহ তারা আতংকে রয়েছেন।


রাজবাড়ী জেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটির সদস্য ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এমএ খালেক জানান, সেখানে পায়ে হাটা রাস্তা ছিলো। কে বা কারা রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরের অফিসের একটি রুম ভেঙ্গে রাস্তা তৈরী করেছে তা তার জানা নেই। তবে সেখানে প্রশস্ত রাস্তা তৈরী করতে স্থানীয় বাসিন্দারা জেলা প্রশাসক ও পৌর মেয়রের কাছে আবেদন করেছ।

রাজবাড়ী থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, প্রাথমিক তদন্তেই রাজবাড়ী রেলওয়ের স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরের অফিস ভবনের অংশ বিশেষ ভাঙ্গা ও রেলওয়ের জমি দখল করে রাস্তা নির্মাণের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

মামলা কপি–

(Visited 2,205 times, 1 visits today)