জীবন থেমে থাকে না, বিশ্বাস করতাম – সাদিয়া ইসলাম স্বর্না –


স্তব্ধ দুনিয়া । থেমে গেছে সব হাসি আর গান । থেমে গেছে জীবন, থেমে গেছে চলার গতিপথ , থেমে গেছে সব চাওয়া পাওয়ার স্বপ্নগুলো । থমকে গেছে জীবন আর জীবিকা । তারই মাঝেই অসলো খুশির ঈদ । কিন্তু খুশি হলাম না , হলোনা তো আনন্দ । স্রোতহীন বয়ে চলা নদীর মতোই আমার একটা ঈদ।
জীবন থেমে থাকে না বিশ্বাস করতাম । সেই বিশ্বাস পরাভূত পুঞ্জিভূত বেদনার নীল সাগরে হারিয়ে গেছে । অদম্য ইচ্ছা শক্তিগুলো কেমন নিরাশার চোরাবালিতে তলিয়ে গেছে ।


ঈদ মানেই তো আনন্দ । আমার এই ছোট্ট জীবনে সব থেকে আনন্দে আন্দোলিত হতাম ঈদের আনন্দে । করোনা নামক অদৃশ্য জীবানু সব আনন্দ বেদনা হয়ে ঐ আকাশে হারিয়ে গেছে । খোলা জানালায় ঐ আকাশে খুঁজে ফিরি আমার সব হারানো আনন্দর মাঝে আমার স্বত্বা ।


ভার্সিটির বড় গেটটা মার্চের ৯ তারিখে বন্ধ করে বদ্ধ দুয়ার খুলে ঘরে পাঠিয়ে বন্দিত জীবন উপহার দিল । সেদিন একবারও মনে হয়নি- এই ঘর আমার জীবনের গতিপথ বদলে দেবে । কেমন মানসিক প্রতিবন্ধী হয়ে যাচ্ছি । আমার মতো লক্ষ লক্ষ শিক্ষার মেধাগুলো সাগরের তলদেশে তলিয়ে যাচ্ছি । জানি না অতল সাগরের তলদেশ থেকে কখনো উঠে এসে নির্মল সেই জায়গাই দাড়িয়ে জীবন নামক নতুন পৃথিবী গড়ে তোলার মানসিক শক্তি ফিরে পাবো কিনা ।


করোনা কালীন ঈদের কথায় আবার ফিরে আসি । তাহলে ফিরে যাই পিছনে । খোলা জানালার দাড়িয়ে আকাশের দিকে ফ্যাল ফ্যাল তাকিয়ে খুঁজি আমার ঈদ আমার আনন্দ আমার ভালো থাকার সব কিছু। বাবা মায়ের সাথে ঈদের শপিং এ যাওয়া । একবার না কয়েকবার যেতাম নিজের পছন্দের সুন্দর পোশাকটি খুঁজে নিতাম । বাবা কখনো পোষাকের মূল্যর দিকে তাকাতেন না। আমার খুশির মূল্যটাই বাবার কাছে সব থেকে বেশি মূল্যবান । মা দিত , মামারা, খালামনিরা । অনেক গুলো পোশাক হতো । সব থেকে সেরা বাবার দেওয়া ড্রেসটাই ঈদের দিন পড়তাম । ঈদের বেড়ানোটাই ছিল সব থেকে অন্য রকম আনন্দের । সেই ঈদ আর এই করোনা কালীন ঈদ এটা তো বেলকনি বা জানালার কার্নিসে দাড়িয়ে উদাশ পথে ভর দুপুরে রোদ্দুরে হেঁটে চলা । এই তো কেটে গেলো ঈদ আমার ।
ভাবছি বসে সর্বোচ্চ সুরক্ষায় চলতে চলতে আবার কি ফিরে পাবো ঈদ আর ঈদের আনন্দ! নাকি পাবো না ?


আসুন আমরা সবাই আর একটু সতর্ক সচেতনতাই পথ চলি । জীবন ও জীবিকার তাগিদে পথের বাঁকে বাঁকে নিজেকে নিজেরাই সামাজিক দুরত্ব রেখে সচেতন হয়ে নিজেকে সুরক্ষা করি এবং পরিবারের সাথে পারিপার্শিক সবাইকে সুরক্ষা করি ।

সাদিয়া ইসলাম স্বর্না
SUBJECT- ECE
ইষ্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি
ঢাকা ।

ফেসবুক থেকে এ ভিডিওটি দেখা না গেলে TV Rajbari লিখে ইউটিউবে সার্চ দিলেও দেখা যাবে।

(Visited 151 times, 1 visits today)