মাদক মামলায় রাজবাড়ীতে এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদন্ড –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ী মাদক মামলায় লিটন শেখ (২৩) নামের এক ব্যক্তি যাবজ্জীবন করাদন্ড প্রদান করেছে আদালত। লিটন রাজবাড়ী সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদপুর গ্রামের তাহের আলী শেখের ছেলে।
আদালত সুত্রে জানাগেছে, জানাগেছে, লিটন শেখের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ৯ অক্টোবর রাজবাড়ী সদর থানায় একটি মাদক মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলার দীর্ঘ স্বাক্ষ্য-প্রমাণ গ্রহণ শেষে আজ সোমবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিলুফার সুলতানা লিটনের বিরুদ্ধে এ কারাদন্ড প্রদান করেন।

২০১৫ সালের ৯ অক্টোবরের নিউজ :

কোলারহাট বাজার থেকে স্কুল ব্যাগে ভর্তি ৮০ বোতল ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

২২ বছর বয়সী লিটন সেখের পিঠে নতুন স্কুল ব্যাগ। বয়স ও চেহারা দেখে মনে হয় কলেজে অধ্যায়নরত কোন ছাত্র। হয়তো যাচ্ছেন তিনি কোন প্রাইভেট টিউটরের কাছে পড়তে। তবে সন্দেহের বিষয় হলো তার বহনকারী মোটরসাইকেলটির একটি চাকা পানচার হবার পর তা ফেলে স্ব-যতনে স্কুল ব্যাগটি নিয়ে সটকে পড়ার চেষ্টা। আর এতেই বেড়িয়ে আসে থলের বিড়াল। এলাকাবাসী আটক করে তাকে। সেই সাথে স্কুল ব্যাগ খুলে তারা দেখতে পান, ওই ব্যাগের মধ্যে বই, খাতা, কলমের পরিবর্তে রয়েছে থরে থরে সাজানো রয়েছে শুধু মাত্র ফেনসিডিলের বোতল। ২০১৫ সালের ৯ অক্টোবর (শুক্রবার) ভোরে ওই ঘটনাটি ঘটেছে রাজবাড়ী জেলা সদরের বসন্তপুর ইউনিয়নের কোলারহাট বাজারে। আটকৃত লিটন সেখ জেলা শহর সংলগ্ন মিজানপুর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদপুর গ্রামের তাহের আলী সেখের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ফজরের নামাজ আদায় করে জেলা সদরের বসন্তপুর ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামের মুসুল্লীরা করছিলেন সড়কে হাটাহাটি। এ সময় তাদের পাশ দিয়ে দুই জন আরোহির একটি মোটরসাইকেল রাজবাড়ী জেলা শহরের দিকে দ্রæত গতিতে ছুটে যায়। দেখে মনে হচ্ছিল মোটরসাইকেল চালক তার পেছনে বসে থাকা স্কুল ব্যাগ বহণকারীকে পৌছে দিতে যাচ্ছেন কোন প্রাইভেট টিউটরের কাছে। তবে বিধিবাম মোটরসাইকেলটির পেছনের চাকা হয় পানচার। সেই সাথে দু’আরোহীই পরে গিয়ে স্বল্প পরিমানে হন আহত। স্থানীয়রা ছুটে এগিয়ে আসেন তাদের উদ্ধারে। তবে সেদিকে খেয়াল না দিয়ে চালক লিটন সেখ উঠে দাঁড়ান। তিনি পেছনের যুবকের পিঠে থাকা স্কুল ব্যাগটি দ্রæততার সাথে নিজের হেফাজতে নিয়ে মোটরসাইকেল এবং ওই যুবককে ফেলে রেখে একা উঠে পরেন রিকশা ভ্যানে। বিষয়টি স্থানীয়দের মনে দাগকাটে এবং তাদের সন্দেহ হয় ওই স্কুল ব্যাগের মধ্যে কোন না কোন অবৈধ দ্রব্য রয়েছে। তারা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে দু’কিলো মিটার দুরে থাকা কোলারহাট বাজারে অবস্থানরতদের বিষয়টি অবহিত করেন।
স্থানীয় গ্রাম পুলিশ ফিরোজ আহম্মেদ জানান, খবর পেয়ে তিনিও ছুটে আসেন কোলারহাট বাজারে। অপেক্ষায় থাকেন রিকশা ভ্যানটি আসার। এক পর্যায়ে ভ্যানটি তাদের কাছে আসে এবং আরেহী লিটন সেখকে তারা আটক করে স্কুল ব্যাগের মধ্যে কি আছে তা জানতে যান। তবে লিটন কৌশলে কলেজ ছাত্রের ন্যায় বই খাতা থাকার বিষয়টি অবহিত করে ব্যাগটি তল্লাশী করতে না দেয়ার বাহানা শুরু করে। এক পর্যায়ে এলাকাবাসীর সহযোগীতায় তিনি ব্যাগটির চেন খোলেন এবং দেখেন তাতে থরে থরে সাজানো শুধুই ফেনসিডিল। সে সময়ই লিটনকে তিনি গাছের সাথে বেঁধে রেখে সংবাদ দেন সদর থানার ওসিকে।
রাজবাড়ী থানার এসআই বদিয়ার রহমান বলেন, তারা ঘটনাস্থল থেকে মোটরসাইকেল জব্দ করার পাশাপাশি স্কুল ব্যাগটির মধ্য থেকে ৮০ বেতাল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। সেই সাথে ব্যাগ বহনকারী লিটন সেখকে গ্রেপ্তার করে রাজবাড়ী থানায় নিয়ে আসেন। এ ঘটনায় তিনি নিজেই বাদী হয়ে গতকাল বিকালে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

(Visited 264 times, 1 visits today)