রাজবাড়ী সদর উপজেলায় নিয়ম না মেনেই মাছের পোনা অবমুক্তকরণ –

রুবেলুর,ইমরান,আতিয়ার, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

রাজবাড়ী সদর উপজেলার বিভিন্ন নদী, বিল ও লেকে রুই, কাতলা ও মৃগেল মাছের পোনার অবমুক্তকরণে শিডিউলের নিয়ম না মেনেই ৩৪৪ কেজি মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার বানিবহ ইউনিয়নের বারেক গ্রামের কালিমন্দীর সংলগ্ন হড়াই নদীতে ২৩৯ কেজি মাছের পোনা অবমুক্ত করে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।
এতে উপস্থিত ছিলেন, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাঃ মজিনুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাঈদুজ্জামান খান, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনুর আক্তার বিউটি, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ সাঈদ আহমেদ, বানিবহ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা বাচ্চু, ঠিকাদার আবু সাঈদ প্রমূখ।
পর্যায়ক্রমে শিডিউল অনুযায়ী লজ্জাতুন নেছা মাদ্রাসার পুকুরে ২০ কেজি, সার্কিট হাউজ পুকুরে ৪০ কেজি, লোকশেড পুকুরে ২৫ কেজি ও বানিবহ বার্থা খান বাড়ী জামে মসজিদের পুকুরে ২০.৮৩ কেজি পোনা অবমুক্ত করা হবে।
এ সময় সবমিলিয়ে মোট ৩৪৪ কেজি মাছের পোনা অবমুক্ত করার কথা রয়েছে। যার প্রতি কেজি পোনার মূল্যে ধরা হয়েছে ২৯০ টাকা। তবে এতে রুই ৪০%, কাতলা ২০% ও মৃগেল ৪০% মাছের পোনা অবমুক্ত করার কথা রয়েছে। তবে হড়াই নদী ও লজ্জাতুন্নেছা মাদ্রাসার পুকের ছাড়া পোনার মধ্যে প্রায় ৮০ % ই মৃগেল ও সিলভার কার্প মাছ ছাড়া হয়েছে। বাঁকী মাছের মধ্যে রুই, কাতলা ও তেলাপিয়া মাছের পোনা ছাড়তে দেখা যায়।
মাছের পোনা অবমুক্তকরণ কার্যক্রমের ঠিকাদার আবু সাঈদ জানান, যথাযথ নিয়মে মাছের পোনা ছাড়া হয়েছে। তবে এর মধ্যে সিলভার কার্প ও তেলাপিয়া মাছ ছিল কিনা সেটা তার জানা নাই।
সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ সাঈদ আহমেদ জানান, মাছ ছাড়ার সময় পোনা অবমুক্ত কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। নিময় মেনেই পোনা ছাড়া হয়েছে। ৫টি কার্যক্রমের পোনা সব আজই ছাড়া হবে।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাঈদুজ্জামান খান মৃগেল মাছের পোনা বেশি ছাড়া হয়েছে উল্লেখ করে জানান , মাছের পোনা অবমুক্ত করার বিষয়ে জেলা মৎস্য কর্মকর্তার সাথে কথা বলা হবে। যদি শিডিউলের নিয়ম না মেনে মাছের পোনা ছাড়া হয় তাহলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থ্যা গ্রহন করা হবে।
জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাঃ মজিনুর রহমান জানান, বারেক গ্রামের হড়াই নদীতে মাছের পোনা অবমুক্ত করার আগে মিশ্র মাছের পোনার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানো হয়। তখন তিনি বলেছেন যেহেতু পোনা এনে ফেলেছে ছেড়ে দেন। পড়ে যথাযথ নিয়মে নদীতে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন। এছাড়া অন্যান্যে স্থানে যে পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে সেগুলো উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সাঈদ আহমেদের তত্তাবধায়নে ছাড়া হয়েছে। তবে অবমুক্তকরণ পোনার মধ্যে বেশির ভাগই মৃগেল মাছের পোনা। মৃগেল ও সিলভার কার্প মাছের পোনার কেজি প্রতি দাম হবে ৮০ থেকে ১০০ টাকার মতো।

(Visited 118 times, 1 visits today)