স্প্রিট ব্রেকারের দাবীতে গোয়ালন্দ মোড়ে দুই ঘন্টা সড়ক অবরোধ

নজরুল ইসলাম :

34ed-1

ঢাকা-খুলনা মহা-সড়কের রাজবাড়ী জেলা সদরের গোয়ালন্দ মোড়ে স্প্রিট বেকোরের দাবীতে এলাকাবাসী দীর্ঘ ২ ঘন্টা গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ সৃষ্ঠি করে। এ সময় এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সাথে এলাকাবাসীর সমঝোতার হওয়ায় অবরোধ তুলে নেয়া হয়। একই সাথে রাজবাড়ীর সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মচারীরা ওই সড়কের তিন পাশে স্প্রিট ব্রেকার নির্মাণের কাজও শুরু করে।
জেলা সদরের শহীদওহাবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন খান জানান, ঢাকা-খুলনা মহা-সড়কের রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড় অত্যান্ত ব্যস্ততম এলাকা। এখান দিয়ে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের ২১টি জেলা যাত্রীবাহি বাস ও পন্যবাহি যানবাহন প্রতিনিয়ত চলাচল করে। গত শুক্রবার সকালে গোয়ালন্দ মোড় করিম ফিলিং ষ্টেশনের সামনে ওই এলাকার বাবুল খান ওরফে বাবু মেকারের ছেলে ও স্থানীয় আল হাসান কিন্ডার গার্টেনের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্র রিয়াদ খান (১০) ট্রাক চাপায় গুরুতর আহত হয়। সে এখনো রাজধানী ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। স্কুল ছাত্র রিয়াদ আহত হবার দিনও এলাকাবাসী বিক্ষোভ প্রদর্শন করে এবং স্প্রিট ব্রেকারের দাবীতে দীর্ঘ দেড় ঘন্টা এ সড়কটি অবরোধ করে রাখে। পরে রাজবাড়ী-২ আসনের এমপি মোঃ জিল্লুল হাকিমের আশ্বাসের ভিত্তিতে অবরোধ তুলে নেয়া হয়। তবে গত দু’দিনেরও এ আশ্বাসের বাস্তবায়ন না হওয়ায় গতকাল সোমবার সকাল ১১ টার দিকে এলাকাবাসী ওই সড়কে নেমে আসে এবং সড়কের বিভিন্ন স্থানে গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ সৃষ্টি ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, অবরোধ চলাকালীন সময়ে সড়কের উভয় পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। সে সময় আটককে থাকা যানবাহন চালক ও যাত্রীরা সীমাহিন দূর্ভোগের শিকার হন।
রাজবাড়ী থানার ওসি শহীদুল ইসলাম জানান, রাজবাড়ীর নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট জমিরুল ইসলাম ও তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসীদের সাথে কথা বলেন। তাদের দাবী মেনে নেয়ার আশ্বাস ও বাস্তবায়ন করার কথা প্রকাশ করার পর দুপুর ২ টার দিকে অবরোধ তুলে নেয়া হলে ওই সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। পরে রাজবাড়ীর সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মচারীরা গোয়ালন্দ মোড়-দৌলতদিয়া, গোয়ালন্দ মোড়-ফরিদপুর ও গোয়ালন্দ-রাজবাড়ী সড়কের প্রবেশ মুখে একাধিক স্প্রিট ব্রেকার নির্মাণের কাজ শুরু করেন।

(Visited 19 times, 1 visits today)