চন্দনী ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনের উদ্ভোধন

মেহেদী হাসান/আল মামুন আরজু :

Ud-1

রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী বলেছেন, রাজবাড়ী জেলাকে উন্নয়নের জেলা করতে আমাদের যা যা করা দরকার, আমরা তা করবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বৃহত্তর ফরিদপুর জেলায় উন্নয়নের জোয়ার বইয়ে দিতে চায়। কারন এ বৃহত্তর জেলায় জাতির পিতার জন্ম। আমাদের সরকার উন্নয়ন বান্ধব সরকার এ সরকার উন্নয়ন করতে ভালোবাসে। আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসলে দেশের উন্নয়ন হয়। দেশের মানুষ শান্তিতে থাকে। বিএনপির সরকার দেশটাকে যে অবস্থায় রেখে গিয়েছিল তার থেকে শত গুন উন্নয়ন এ সরকারের আমলে হয়েছে। চন্দনী ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনটি নির্মান করতে ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ৪ লক্ষ টাকা। এর সোন্দয্য বাড়ানোর জন্য একটি বাউন্ডারি দেওয়াল প্রয়োজন, দ্রুত সময়ের মধ্যেই ওই অর্থও বরাদ্দ করা হবে এবং এ সরকারের আমলে দেশে আর কোন কাঁচা রাস্তা থাকবে না, থাকবে না কোন ভাঙ্গা চুড়া রাস্তা।
তিনি গত সোমবার সকালে রাজবাড়ী সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলে।
চন্দনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মালেক শিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন, রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খান, রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার তাপতুন নাসরীন, সদর উপজেলার চেয়ারম্যান এডঃ এমএ খালেক, রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেওয়ান মাহবুবুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, অগ্রণী ব্যাংক কেন্দ্রীয় কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি নজরুল ইসলাম মনি, রাজবাড়ী সদর উপজেলার প্রকৌশলী স্বপন কুমার গূহ, চন্দনী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আকরাম হোসেন। চন্দনী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দর রব, এড: আইয়ুব আলী খান, চন্দনী বাস স্ট্যান্ড কমিটির সাধারন সম্পাদক আব্দুল হালিম মন্ডল প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে চন্দনী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম মকছুদ আহম্মদ রাজা জৌকুড়া ১৯৯৮-২০০৩ চেয়ারম্যান। চন্দনী ইউপি কমপ্লেক্স ভবনের জন্য ৩১ শতাংশ জমি দাতা প্রয়াত নরেন্দ্রনাথ দাস এর আতœার মাগফিরাত কামনা করে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

(Visited 36 times, 1 visits today)