চরমপন্থী নেতা আমজাদ অস্ত্র ও গুলি সহ গ্রেফতার

রেজাউল করিম :

গত রবিবার বিকালে পূর্ব বাংলা কমিনিষ্ট পার্টির লাল পতাকার (সুশিল বাহিনী) আঞ্চলিক কমান্ডার আমজাদ হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে। এ সময় তার কাছ থেকে একটি ওয়ান সুটারগান ও ৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। আমজাদ রেলওয়ের কর্মচারী আব্দুস সাত্তার হত্যার মামলার অন্যতম আসামী। আমজাদ জেলার পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের দয়ালবন্দু গ্রামের মৃত ফজের আলীর ছেলে।
জানাগেছে, অনেক দিন যাবৎ ধরে আমজাদকে গ্রেপ্তারের জন্য র‌্যাব সদস্যরা ওৎ পেতে থাকে। গতকাল গোপন খবর পেয়ে র‌্যাব সদস্যরা সাধারন পোশাক পরিধান করে তার বাড়ীতে অভিযান চালায়। র‌্যাবের সদস্যদেরকে টের পেয়ে আমজাদ হোসেন দৌড়ে পালানোর চেষ্ঠা করে। র‌্যাবের সদস্যগন অতি দক্ষতার সহিত প্রচেষ্টা চালিয়ে তাকে পাকরাও করে। তার বিরুদ্ধে হত্যা সহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেযোগ্য হলো, চলতি বছরের ১১ জুলাই বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্মচারী আব্দুস ছাত্তার (৫৫) খোলাবাড়ীয়া বায়তুল আমান জামে মসজিদ থেকে জুমআর নামাজ আদায় করে। জুমআর নামাজ এর ফরয নামাজ শেষ করতে না করেতই তার মোবাইল বেজে ওঠে। তারা হুরা করে মসজিদ থেকে বের হয়ে বাড়ীর দিকে রওয়ানা হয়। মসজিদ হতে আনুমানিক ৩ শত গজ উত্তরে আকবর শিকদারের বাড়ীর পূর্বে রেল রাস্তার পাশে তাকে গুলি এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে যখম করে হত্যা করা হয়। আমজাদ এর বাড়ী তল¬াসী চালিয়ে একটি আগ্নেয় অস্ত্র সহ বেশ কয়েক রাউন গুলি উদ্ধার করা হয়। আমজাদের বলেন যে, ছাত্তার মিয়ার এবং আমজাদ হোসেন এর পরিবারের মধ্যে জমি জমা নিয়ে বিরোধ থাকায় ইতিপূর্বেও তাকে হত্যার প্রচেষ্টা চালিয়েছিল।
এই অভিযানের নেতৃত্ব দেন র‌্যাব-৮ এর এ.এস.পি আমিনুল রহমান, ডি.এম.পি আনিসুর রহমান, এস.আই নজরুল ইসলাম এবং অন্য সদস্যগন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

(Visited 24 times, 1 visits today)