পাংশায় কলেজ ছাত্রের মুখে এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় শৈলকুপা থেকে যুবক গ্রেপ্তার

স্টাফ রিপোর্টার :

456

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কলিমহর ইউনিয়নের হাটবনগ্রামের বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে এক কলেজ ছাত্রের মুখে এসিড নিক্ষেপ করেছে দূর্বত্তরা। এতে গুরুতর আহত হয়েছে ওই ছাত্র। তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত ছাত্রের নাম সুব্রত দাস (২২)। সে হাটবনগ্রামের সম্ভু দাসের ছেলে। সুব্রত রাজবাড়ীর ডাঃ আবুল হোসেন কলেজের অনার্সের বাণিজ্য বিভাগের অধ্যায়নরত একজন ছাত্র এবং রাজবাড়ী জেলা শহরের বন্ধু সোস্যাল ওয়েল ফেয়ার সোসাইটি এনজিও-এর একজন পিআর এডুকেটর কর্মী।
জানাগেছে, এ ঘটনায় গত ৭ আগষ্ট পাংশা থানায় অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে জেলার পাংশা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলায় গত মঙ্গলবার রাতে পাংশা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঝিনাইদহ জেলার শৈলকূপার নিরঞ্জন কুমার বিশ্বাসের ছেলে মেকানিক নিশিত কুমার বিশ্বাস (২৯) কে গ্রেপ্তার করেছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পাংশা থানার এসআই আবু সায়েম বলেন, গ্রেপ্তারকৃত নিশিত কুমার বিশ্বাসকে বৃহস্পতিবার বিকালে আদালতে সোর্পদ করা হয়। সে রাজবাড়ীর জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট তওহিদুল ইসলামের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে। নিশিত কুমার বিশ্বাস জবানবন্দিতে বলেছে, হিজলা প্রকৃতির কলেজ ছাত্র সুব্রত দাসকে সে ৩ বছর পূর্বে মন্দিরে গিয়ে সমকামী বিয়ে করে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে সুব্রতর সাথে তার সম্পর্ক ভাল যাচ্ছিল না। এর অংশ হিসেবে সে সুব্রতকে এসিড নিক্ষেপ করেছে।
সুব্রতের দুলাভাই নিশিত কুমার বিশ্বাস জানান, অজ্ঞাত পরিচয়ের দুই জন দূর্বত্ত যুবক জেলার পাংশা উপজেলার কলিমহর ইউনিয়নের হাটবনগ্রামের বাড়ীর সামনে যায়। তারা কৌশলে অপরিচিত মোবাইল ফোন নম্বর থেকে কল করে কলেজ ছাত্র সুব্রতকে বাড়ীর সামনে ডেকে নিয়ে আনে। সেই সাথে কোন কিছু বুঝে উঠার সুযোগ না দিয়ে তার মুখ, গলা ও বাম হাতে এসিড ঝুড়ে মেরে দূর্বত্তরা পালিয়ে যায়। এ সময় সুব্রত-এর চিৎকারে বাড়ীর লোকজনসহ প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে দূর্বত্তরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে গুরুতর অবস্থায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।
বন্ধু সোস্যাল ওয়েল ফেয়ার সোসাইটি রাজবাড়ীর ডিআইস ম্যানেজার মাকসুদুর রহমান মাসুদ বলেন, সুব্রত দাস তাদের এনজিও’র পিআর এডুকেটর পদে ২০১২ সাল থেকে কাজ করে আসছে। তবে সে সমকামী বিয়ে করেছে কিনা তা তার জানা নেই। তবে যে কারণেই হোক তাকে এসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে। তাই এ ঘটনার তিনি বিচার দাবী করেছেন।

(Visited 23 times, 1 visits today)