গোয়ালন্দে বিপুল পরিমান ভারতীয় শাড়ি ও থ্রি-পিচ উদ্ধার, গ্রেপ্তার ২

আজু সিকদার, গণেশ পাল :

=43

 গোয়ালন্দের দৌলতদিয়াঘাট এলাকা থেকে বিপুল পরিমান ভারতীয় দামী শাড়ি ও থ্রি-পিচ কাপড় উদ্ধার করেছে পুলিশ। অবৈধ ওই কাপড় সীমান্ত এলাকা থেকে ট্রাক বোঝাই করে তা ঢাকায় পাঁচার হয়ে যাচ্ছিল। গত রবিবার রাজবাড়ীর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একটি দল অভিযান চালিয়ে কোটি টাকা মূল্যের ওই ভারতীয় কাপড় উদ্ধার ও ট্রাকটি জব্দ করে। এ ঘটনায় জড়িত বাহারুল ইসলাম ও সোহরাব হোসেন নামের দুই চোরাকারবারিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
রাজবাড়ীর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সেতাব আলী জানান, ‘দৌলতদিয়াঘাট দিয়ে বিপুল পরিমান ভারতীয় অবৈধ কাপড় ঢাকায় পাঁচার হয়ে যাচ্ছে’ এমন গোপন সংবাদ পেয়ে গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ডিবি পুলিশের একটি দল দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় অভিযান চালায়। এসময় ফেরিঘাট সড়কের স্থানীয় জাকের পার্টি কার্যালয়ের সামনে সিরিয়ালে আটকে থাকা একটি ট্রাক ( নম্বর খুলনা মেট্রো ড-১১-০১৮০) পুলিশ আটক করে। তবে এর আগে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ট্রাকটির চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। এদিকে ঘটনার সাড়ে ৫ ঘন্টা পর ওই দিন দুপুর ১টার দিকে রাজবাড়ীর সহকারি পুলিশ সুপার (সার্কেল) কাজী আহসান হাবিব ঘটনাস্থলে এসে পৌছান। পরে এলাকাবাসী ও সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে আটককৃত ওই ট্রাক থেকে কোটি টাকা মূল্যের বিপুল পরিমান ভারতীয় অবৈধ শাড়ি ও থ্রি-পিচ কাপড় উদ্ধার ও ট্রাকটি জব্দ করে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত দুই চোরাকারবারিকে রবিবার বিকেলে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর থানার ফলখালী গ্রামের হাজী পিয়ার আলীর ছেলে মো. বাহারুল ইসলাম (৩৭) ও সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানা সদরের ইনু মোড়লের ছেলে সোহরাব হোসেন (৩৮)। রবিবার রাত ৮টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উদ্ধারকৃত মালামালের গননা কাজ চলছিল।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রাজবাড়ীর ডিবি পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) মো. শাহ জালাল বলেন, ‘গ্রেপ্তারকৃত বাহারুল ও সোহরাব দুজনই চোরাকারবারি। ঈদুল আযহা উৎসবকে সামনে রেখে তারা বেনাপোল সীমান্ত থেকে ভারতীয় অবৈধ ওই কাপড় ঢাকায় পাঁচার করছিল।’

(Visited 44 times, 1 visits today)