ছাত্রীপেটানো শিক্ষকের ভয়ে গোয়ালন্দের বেথুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভীত

গণেশ পাল :

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে ছাত্রীপেটানো সেই প্রধান শিক্ষককে গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের বেথুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বদলির আদেশ দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে বেথুরী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ এলাকার সচেতন অভিভাবক মহলে এখন অজানা এক আতঙ্ক বিরাজ করছে।
জানা যায়, রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের নতুনচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আক্তার জাহান। গত বুধবার দুপুরে তিনি তার স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির ৩২ জন ছাত্রীকে শ্রেণিকক্ষ, শৌচাগার ও স্কুলআঙ্গিনা পরিস্কার করার নির্দেশ দেন। নির্দেশ না মানায় প্রধান শিক্ষক আক্তার জাহান এসময় ওই ছাত্রীদেরকে বেতের আঘাতে বেদম পিটিয়ে আহত করেন। তারমধ্যে গুরুতর আহত ১৯ ছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে বালিয়াকান্দি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সুশান্ত কুমার বাড়ৈ ঘটনা তদন্ত করে ওই দিন রাতেই জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে তিনি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পাঠানো এক ফ্যাক্সবার্তায় ওই প্রধান শিক্ষক আক্তার জাহানকে গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের বেথুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বদলি ও সাময়িক বরখাস্ত করার আদেশ দেওয়া হয়।
এদিকে ছাত্রীপেটানো ওই প্রধান শিক্ষককে গোয়ালন্দে বদলি করায় উপজেলা এলাকার সচেতন জনমনে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। বেথুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন সহকারি শিক্ষক (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) জানান, প্রধান শিক্ষক আক্তার জাহান আসছেন জেনে তার স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের মনে অজানা এক আতঙ্ক বিরাজ করছে।
চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী রহিমা আক্তার বলে, ‘আমাগো স্কুলে নতুন যে হেডস্যার আইতাছে হে নাকি খুব বদরাগি। কতায় কতায় ছাত্র-ছাত্রী পিটায়। বেত দিয়া মাইরের চোটে ছাত্রীগো হাসপাতালে পাঠায়। তাই আমরা অহোন তারে নিয়া খুব ভয়ের মধ্যে আছি স্যার।’ দেবগ্রাম ইউপির স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মো. হাসেম ফকির জানান, দীর্ঘদিন যাবত বেথুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদটি শুন্য হয়ে আছে। তবে বালিয়াকান্দিতে ছাত্রীপেটানো সেই প্রধান শিক্ষককে বেথুরী স্কুলে বদলি করায় বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ এলাকার সচেতন অভিভাবক মহল অনেকটা ক্ষুব্ধ। পাশাপাশি অনেকের মনে অজানা আতঙ্কও ছড়িয়ে পড়ছে। তিনি আরো বলেন, ‘বেথুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আমরা একজন আদর্শ প্রধান শিক্ষক চাই।’
গোয়ালন্দ উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার কাজী সানোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

(Visited 21 times, 1 visits today)