দৌলতদিয়ায় যৌনকর্মীকে গলা কেটে হত্যা –


শামীম শেখ, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 


গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে রিতু বেগম (৩০) নামের এক যৌনকর্মীকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। সে যৌনপল্লীর একটি বাড়ির মালিক।তার কথিত স্বামীর নাম সুজন খন্দকার। তার সাবেক স্বামীর ওরসে নবম শ্রেনী পড়ুয়া একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। সে পল্লীর বাইরে তার নানীর সাথে ভাড়া বাড়িতে থাকে।খবর পেয়ে সকালে মায়ের লাশের পাশে এসে সে কান্নাকাটি করতে থাকে।তবে মায়ের হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে সে কিছু জানেনা বলে সাংবাদিকদের জানায়।


শুক্রবার দিনগত শনিবার রাত ২ টার পর হতে সকাল ৮ টার মধ্যে যে কোন সময় তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে স্হানীয়দের ধারনা। শনিবার সকালে  ঘরের মেঝেতে রিতুর রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেহে স্হানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে রাজবাড়ীর সহকারী পুলিশ সুপার ( সদর সার্কেল) মোঃ সালাউদ্দিন ও গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীরের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্হলে পৌছান।


পল্লীর একাধিক সূত্র জানায়, রাত ২ টা পর্যন্ত রিতু তার বাড়ির দুই ভাড়াটিয়ার সাথে একসঙ্গে বসে মাথায় তেল নেয়। এর মধ্যে সুজন দুইবার ওই বাড়িতে আসা-যাওয়া করে।রাত ৩ টার দিকে রিতু এক খদ্দেরকে নিয়ে ঘরে প্রবেশ করে। এরপর হতে আর কিছু জানা যায় নি।সকালে তার রক্তাক্ত মরদেহ মেঝেতে  পড়ে থাকতে দেখা যায়। 
পুলিশ এ ঘটনায় রিতুর কথিত স্বামী সুজন খন্দকার এবং তার  দুই ভাড়াটিয়া যৌনকর্মীকে পল্লীর একটি অফিসে আটকে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। পুলিশ ঘটনাস্হল ঘেরাও করে রেখেছে। পিবিআই ও সিআইডির পৃথক দুটি দল ঘটনাস্হলে পৌছে তাদের কাজ শুরু করেছে।


গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, হত্যাকান্ডের বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। পিবিআই ও সিআইডির আলামত সংগ্রহ ও প্রাথমিক তদন্তের পর আমরা লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠাবো।এ ঘটনায় হত্যাকান্ডের শিকার রিতুর কথিত স্বামী সুজন খন্দকারসহ আরো কয়েকজনের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তবে এখনো পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয়নি।

ফেসবুক থেকে এ ভিডিওটি দেখা না গেলে TV Rajbari ( https://www.youtube.com/channel/UCuDGuIdq78amgxb4yhEJ55w )  লিখে ইউটিউবে সার্চ দিলেও দেখা যাবে।

(Visited 392 times, 1 visits today)