দৌলতদিয়া -পাটুরিয়া নৌরুট : বৈরী আবহাওয়ায়ও থেমে নেই কর্মমুখী মানুষ –


শামীম শেখ,রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 


বৃহস্পতিবার দিনভর থেমে থেমে চলছিল বৃষ্টি। সাথে পদ্মা-যমুনায় উত্তাল ঢেউ ও তীব্র বাতাস।এর মধ্যেও দেশের ব্যাস্ততম দৌলতদিয়া -পাটুরিয়া নৌরুট দিয়ে  রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় ছুটে চলেছেন কর্মজীবী হাজারো মানুষ। 
করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে দেশজুড়ে  চলমান কঠোর লকডাউন চলছে। বন্ধ রয়েছে গণপরিবহন চলাচল। এ অবস্থায় পথে পথে নানান ভোগান্তি নিয়েও দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা -উপজেলা হতে নদী পার হওয়ার জন্য  দৌলতদিয়া ঘাটে আসছেন লোকজন।
 বৈরী আবহাওয়া ও উত্তাল পদ্মাও থামাতে পারছে না কর্মমুখী এ সকল মানুষকে। জীবন-জীবিকার তাগিদে বৃষ্টিতে ভিজেই ছুটে চলেছেন তারা।অনেকটা বিনা বাঁধাতেই তারা দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে ফেরিযোগে নদী পার হয়ে যাচ্ছেন।
বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সকাল থেকেই ঘাট এলাকায় এমন দৃশ্য  দেখা যায় ।


সরেজমিন দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় দেখা যায়, গত কয়েকদিনের ন্যায় বৃহস্পতিবারও দক্ষিন-পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকার নিম্ন আয়ের শ্রমজীবী সাধারণ মানুষ কঠোর বিধিনিষেধ, বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে ছোট ছোট যানবাহনে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে আসছেন।এরপর তারা এখান থেকে ফেরিতে করে উত্তাল পদ্মা-যমুনা নদী পাড়ি দিচ্ছেন। এসময় স্বাস্থ্যবিধি তো দুরে থাক, অনেকের মুখে মাস্কই ছিল না।
ঝিনাইদহ  থেকে আসা ঢাকামুখী  গার্মেন্টস কর্মী হাসিনা আক্তার বলেন, “প্যাডে ভাত না থাকলে মরনের ভয় থাহে না, কিসের করোনা, কিসের ঝড় বৃষ্টি???  কারখানায় যায়া কামে যোগ দিবার না পারলে  চাকরী থাকবো না।”


কুষ্টিয়া থেকে আসা গাজিপুরগামী আরিফুল ইসলাম বলেন,একটি  প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করি। ছুটি শেষ হয়েছে আরো আগেই। কঠোর লকডাউনের কারনে ভেবেছিলাম কয়েকদিন পরেই যাই। কিন্তু অফিসের অন্য স্টাফরা সবাই যে যার মতো করে গিয়ে কাজে যোগ দিয়েছে। ম্যানেজার ফোনে খুব রাগারাগি করেছেন। তাই এক প্রকার বাধ্য হয়েই চাকরী বাঁচাতে  রওনা দিয়েছি। 
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. জামাল হোসেন বলেন, বৈরী আবহাওয়ার সাথে ঝড়োবৃষ্টি হওয়ায় ফেরিতে যানবাহন পারাপার কমে গেছে। তবে এ অবস্হার মধ্যেও সকাল থেকে বহু সাধারণ মানুষ নদী পার হচ্ছে। বর্তমানে এ নৌরুটে জরুরি পারাপারের জন্য ছোট – বড় মিলিয়ে ৯ টি ফেরি চালু রাখা হয়েছে।

https://www.youtube.com/watch?v=bbL4R0gcFJ0
https://www.youtube.com/watch?v=bbL4R0gcFJ0

ফেসবুক থেকে এ ভিডিওটি দেখা না গেলে TV Rajbari ( https://www.youtube.com/channel/UCuDGuIdq78amgxb4yhEJ55w ) লিখে ইউটিউবে সার্চ দিলেও দেখা যাবে।

(Visited 16 times, 1 visits today)