রাজবাড়ীর রাবেয়া টাওয়ারে ঢাকার যুবতীকে দেড় মাস আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

২২ বছর বয়সী এক যুবতীকে রাজধানী ঢাকা থেকে তুলে এনে দীর্ঘ দেড় মাস রাজবাড়ী জেলা শহরের বড়পুল এলাকার রাবেয়া টাওয়ারে আটকে রেখে ধর্ষণ, মারপিট ও প্রাণনাশের হুমকি প্রদানের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই অভিযোগে ফরিদপুর জেলা শহরের রাজবাড়ী রাস্তার মোড় এলাকার টাটা কোম্পানীর ডিলার “বিসমিল্লাহ মটরর্স” -এর মালিক রুহুল আমিন (৩১) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে ওই যুবতী বাদী হয়ে রুহুল আমিনকে আসামি করে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।


মামলার বাদী ওই যুবতী জানিয়েছেন, ২০২০ সালের ৬ জানুয়ারী মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার সাথে রুহুল আমিনের পরিচয় হয়। এ পরিচয়ের সুত্র ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই মাঝে তার বিবাহ ঠিক হয়। গত ১৮ এপ্রিল তিনি বিয়ের সাজ সাজতে রাজধানী ঢাকার দক্ষিণখান এলাকার একটি বিউটি পার্লারে যাবার সময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রুহুল আমিন তাকে ঢাকার অজ্ঞাত বাসায় ২২ এপ্রিল পর্যন্ত আটকে রাখে। পরবর্তীতে তাকে রাজবাড়ী জেলা শহরের রাবেয়া টাওয়ারের অষ্টম তলায় একটি বাসায় এনে তোলে। সেখানে তাকে আটকে রেখে দিনের পর দিন ধর্ষণ করে। তিনি বিয়ের জন্য চাপ দিলে তাকে মারপিট করার ভয়ভীতি প্রদর্শন এবং প্রাণ নাশের হুমকীও প্রদান করে। গত ৮ জুন রাত সাড়ে ৮টার দিকে রুহুল আমিন তাকে মারপিট করে গুরুতর জখম করে। তিনি স্থানীয়দের সহযোগিতায় বিষয়টি রাজবাড়ী থানা পুলিশকে জানান। পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠায়। পরবর্তীতে তিনি রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।


থানা হাজতে আটক থাকা রুহুল আমিন জানিয়েছেন, তিনি ফরিদপুর জেলা শহরের রাজবাড়ী রাস্তার মোড় এলাকার টাটা কোম্পানীর ডিলার “বিসমিল্লাহ মটরর্স”-এর মালিক। পূর্বে থেকেই তার স্ত্রী, ১ ছেলে ও ২ মেয়ে সন্তান রয়েছে।


রাজবাড়ী থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানিয়েছেন, ওই মামলা আসামি রুহুল আমিনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ফেসবুক থেকে এ ভিডিওটি দেখা না গেলে TV Rajbari ( https://www.youtube.com/channel/UCuDGuIdq78amgxb4yhEJ55w ) লিখে ইউটিউবে সার্চ দিলেও দেখা যাবে।

(Visited 1,478 times, 1 visits today)