ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার আওতায় আসছে রাজবাড়ীর বহরপুর বাজার –

মোঃ আমিরুল হক, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

নিজে ভালো থাকলে পরিবার ভালো থাকবে, পরিবার ভালো থাকলে সমাজ ভালো থাকবে, সমাজ ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে। এ ক্ষেত্রে সবাইকে যার যার জায়গা থেকে নিজ দায়িত্বে সমাজের সকল প্রকার অপকর্ম থেকে বিরত থেকে দেশকে ভালো পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে রবিবার সকালে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বহরপুর বাজারে সকল প্রকার অপকর্ম থেকে রক্ষা পেতে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপন কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বালিয়াকান্দি থানায় অফিসার ইনচার্জ মোঃ তারিকুজ্জামান এ কথা বলেন।


তিনি বলেন, জীবন এবং জীবীকার প্রয়োজনে সকল কর্ম প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হয়েছে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতি কবে, কখন কিভাবে শেষ হবে তা যেহেতু অনিশ্চিত, সেক্ষেত্রে আমাদের প্রত্যেককে সার্বক্ষণিক সচেতন থাকতে হবে। সচেতনতার ক্ষেত্রে কোন রকমের উদাসিনতা হলে চলবে না। যারা ঘরের বাইরে আসবেন তারা অবশ্যই শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে মাস্ক পরিধান করে বাইরে আসবেন। এটা আপনাদের প্রতি আমার আহ্বান।
তিনি বলেন, পুলিশকে আজ দেশের মানুষ সর্ম্মান করছে, ভালোবাসছে। যারা নানা কারণে পুলিশের সমালোচনা করতেন, তারাও আজ পুলিশের পক্ষে কথা বলছেন, পুলিশের জন্য কলম ধরছেন। এ পাওয়া আমাদের জন্য বিশাল অর্জন। পুলিশের প্রতি মানুষের বিশ্বাস, আস্থা ও সম্মান আমাদের করোনা পরবর্তী সময়েও ধরে রাখতে হবে।


বহরপুর বাজারকে সুরক্ষার আওতায় আনতে বাজারের চারপাশে ৫০টি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপণকালে উপস্থিত ছিলেন, বহরপুর বাজার পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মোঃ আবুল কালাম বিশ্বাস, সহ-সভাপতি মোঃ হারুন অর রশিদ, সাধারন সম্পাদক শ্রী অনিমেষ কুমার দাস, দপ্তর সম্পাদক খন্দকার মিরাজুর রহমান সান্টু, বাজার পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি মোঃ আবুল কালাম আজাদসহ সকল সদস্যবৃন্দ।


বাজার পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মোঃ আবুল কালাম বিশ্বাস বলেন, বেশ কয়েকদিন ধরে বাজারে কিছু অনাকাঙ্খিত ঘটনার পর বাজার পরিচালনা পরিষদের সকল সদস্যদের নিয়ে আলোচনা করে এবং বালিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ তারিকুজ্জামানের অনুপ্রেরনায় বাজারে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ক্যামেরা স্থাপন কাজের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। বাজারে মোট ৫০টি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা বসানোর কাজ করা হচ্ছে। যার কন্ট্রোল রুম থাকবে বাজার পরিচালনা পরিষদের নির্ধারিত অফিস রুম। ধীরে ধীরে এর সংখ্যা আরো বাড়ানো হবে। ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা বসানোর কাজ শেষ হলে রাজবাড়ী পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান,পিপিএম উদ্বোধন করবেন বলে আশা রাখি।

(Visited 54 times, 1 visits today)