খানখানাপুরে স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করতে গিয়ে অটো চালক নিহত, আহত ২ –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ী সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া থেকে অপহৃত সপ্তম শ্রেণীতে পড়–য়া এক ছাত্রীকে উদ্ধার করে ফেরার পথে অপহরণকারীদের খুড়ের আঘাতে অটোরিকশা চালককে হত্যা এবং ছাত্রীর পক্ষের একজন ও অপর এক পথচারীকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে।


ওই ছাত্রীর পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে জানাগেছে, কয়েকদিন আগে রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর নতুন বাজার হরিজন পাড়া এলাকার লাড়ুয়া জমাদ্দারের ছেলে আশিক (১৬) সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া থেকে ওই ছাত্রীকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এর পর নানা স্থানে খোজাখুজির এক পর্যায়ে ওই ছাত্রীর পরিবারের লোকজন আশিকের বাড়ীতে মেয়েটি অবস্থানের সংবাদ পান।


সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল হালিম মিয়া জানান, বিষয়টার সুরাহার জন্য গত বুধবার রাত ১০টার দিকে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তি নিয়ে আশিকের বাড়ীতে এক গ্রাম্য সালিশ অনুষ্ঠিত হয়। ওই সালিশের সিদ্ধান্তের আলোকে মেয়ের বাবাসহ স্বজনরা একটি অটোরিকশায় মেয়েকে নিয়ে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা হন। অটোরিকশাটি কিছুদুর আসতেই অপহরনকারী আশিকের নেতৃত্বে তার সহযোগিরা অটোরিকশাটির গতিরোধ করে। এক পর্যায়ে তারা অটো চালক এবং সদর উপজেলার পাচুরিয়া ইউনিয়নের মরডাংগা গ্রামের মহব্বত গাজীর ছেলে সাঈদ গাজী (৩৫)-এর গলায় এবং মেয়ের পক্ষের বাবলা (৩০) এবং পথচারী ইলিয়াস নামে একজনকে খুড় দিয়ে আঘাত করে। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে তার কিছু সময় পর অটো চালক সাঈদ গাজী মারা যায়।


রাজবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম বলেন, ওই ছাত্রীসহ তার স্বজনরা সদর উপজেলার খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে রয়েছে। নিহত সাঈদ গাজীর মরদেহ ফরিদপুরে ময়না তদন্ত করা হচ্ছে। ওই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত থানায় কোন লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

(Visited 1,210 times, 1 visits today)