করোনাকালে চেতনার ঘরে পদাঘাত করতে এসেছে ঈদ: গুলশান-আরা-মোস্তফা –

ইদ মানে ‘খুশি’। ইদ মানে ‘আনন্দ’।
মুসলিমদের জন্য রমজানে ১মাস রোজা রাখার পর শাবানের চাঁদ দেখে রোজা ভঙ্গের উৎসব হলো ইদ-উল-ফিতর। সেই ১৪০০ বৎসর ধরে যা চলে আসছে।
ইদের নামাজের জামাত, কোলাকুলি, সেমাই-জর্দা-পোলাও, নতুন পোশাক, প্রিয় জনের মিলন মেলা।
এইতো ইদ।


২০২০!!
করোনাময় পৃথিবীতে, স্তব্ধ মৃত্যুপুরীতে
যেখানে শবের মিছিল, প্রিয়হারা বেদনা
বেচে থাকার চুড়ান্ত আকুতি, কর্মহীন-ক্ষুনিবৃত্তির বুভুক্ষতা।
তবুও এসেছে ইদ
এই ইদে,এই করোনাকালে আমি নতুন করে শিখেছি, বেঁচেঁ থাকার সত্যি অর্থটাকে খুঁজে পেতে-
তাইতো, করোনাকালে আমার কাছে ইদ মানে –
পঙ্গু ভাইয়ের জন্য বৃদ্ধা ভিখারি বোনের আকুলতা!
কখনো ঘর থেকে না বের হওয়া মায়ের হাতে ধরা ছোট্ট শিশুর একটু সেমাই খাওয়ার চাহিদা!!
আবার -কার্তিক, রতন, অনিতাদের ও একটু ভালো খেতে পাবার আনন্দ!


আসলে,
মৃত্যুর মিছিলের পরও আমরা বেঁচে আছি!
বেঁচে থাকতে চাই।
হারিয়ে যাওয়া প্রিয়জনের ব্যাথা বুকে চেপে, পাশে থাকা মানুষগুলোকে নিয়ে নতুন স্বপ্ন বুনি
আর তাই –
চেতনার ঘরে পদাঘাত করতে এসেছে ইদ করোনা কালে।
যতক্ষন আছি স্রষ্টার অপার রহমতে –
চলে যেতে হবে মেনে, নিজেকে বিলিয়ে
অন্যের হাসি, আনন্দ, স্বস্তিতে
খুঁজে নেই ইদকে।

গুলশান- আরা – মোস্তফা
সহকারী শিক্ষক, শ্রীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়।

(Visited 166 times, 1 visits today)