“নভেল করোনা ভাইরাসের সাথে বিলেতে বসবাস ”- লেখক – সঞ্জয় সাহা, যুক্তরাজ্য –

আমি প্রায় দেড় যুগ (১৮বছর) আগে রাজবাড়ী জেলার সদর থানার অন্তর্গত খানখানাপুর বাজার আমার পৈত্রিক বাড়ী ও জন্মস্থান ছেড়ে বৃটিশের অঙ্গরাজ্য ইংল্যান্ডের রাজধানী লন্ডনে উচ্চ শিক্ষা অর্জনের লক্ষ্য চলে আসি । এখন এখানে আমি সহধর্মিনী ও দুই সন্তানের সাথে বৃটিশ নাগরিকত্ব নিয়ে বসবাস করছি। এই একবিংশ শতাব্দীর এযাবৎ কালের ভয়ংকর বিশ্বমহামারী নভেল করনাভাইরাসের কারনে আমাদের যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত (২৪/০৫/২০২০ইং) প্রায় ৩৮ হাজার ব্রিটিশ নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে এবং বর্তমান সময়টা এতটা খারাপ যে তাহা ২য় বিশ্বযুদ্ধের পরে সবচেয়ে কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে দেশ চলছে।

বিশেষজ্ঞর মতে এই মৃত্যুর ধারা অন্তত আরো দুই বছর বা অধিক সময় ধরে চলতে থাকবে । যদিও আমাদের অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীরা নিরলস ভাবে এই বছরের শরৎকালের মধ্য নভেল করনাভাইরাসের প্রতিষেধক (ভ্যাকসিন) বাজারে আনার চেষ্টা করছে।

লকডাউনের দীর্ঘ দুই মাসের অধিক সময় ধরে আমরা একপ্রকার ঘরে বন্দি । চারপাশে শুধুই মৃত্যুর খবর ও স্বজনদের প্রিয়জন হারানোর কষ্ট ।

এখানে বাংলাদেশীসহ অন্যান্য অনেক দেশ থেকে আগত অধিবাসী চাকুরী ও ব্যবসা হারিয়ে সরকারের কোষাগারের অর্থ সাহায্য জিবিকা চালাচ্ছে । তবে আমাদের এখন বেঁচে থাকার চাহিদা ছাড়া আর কিছুই নাই ।

দীর্ঘ ১ মাস আইসলিশন থাকার পর জীবিকার তারনায় গত দুই সপ্তাহ ধরে আমি লন্ডনের ওয়েষ্টমিনিষ্টারের ডাউনিং স্ট্রট সংলগ্ন হোয়াইট হল রোডে অবস্হিত একটি বহুজাতিক কোম্পানির শাখা অফিসে ম্যানেজার হিসাবে কার্যে ফিরে গিয়েছি।

লেখক – সঞ্জয় সাহা, যুক্তরাজ্য ।রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর বাজার এলাকার বাসিন্দা।

(Visited 139 times, 1 visits today)