রাজবাড়ীতে করনা ভাইরাস আতঙ্কে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বিক্রির হিরিক, বেড়েছে দর –

ইমরান জোসেন মনিম, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ীতে হঠাৎ করনা ভাইরাস আতঙ্কে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস পত্রের বিক্রির হিরিক পরেছে। সেই সাথে বেড়ে গেছে নানা ধরনের পন্যেও বাজার দর। যেখানে গত তিন দিন আগে প্রয়োজনীয় নিত্য পন্য সামগ্রী স্বাভাবিক দরে বিক্রি হয়েছে সেখানে বাজারে চাল সহ ডাল, তৈল, পেঁয়াজ ,রসুন, আলু সহ প্রায় অধিকাংশ জিনিস পত্রের দাম বেড়েছে ৫ টাকা থেকে ১০ টাকার মত। প্রতি কেজি মোটা ও চিকন চাল ৪ টাকা থেকে ৬ টাকা কেজিতে বেড়েছে। মোটা চাল যেখানে ৩০ টাকায় বিক্রি হত সেখানে বাজাওে মানুষের ভির ও বিক্রি বাড়ায় দোকানিরা প্রতি কেজি চালের দাম বাড়িয়ে বিক্রি করছেন ৩৫ টাকা থেকে ৩৬ টাকায় । আর বস্তা প্রতি চাল দেরশত থেকে দুইশত টাকা পর্যন্ত বাড়িয়ে বিক্রি করা হচ্ছে।
এদিকে পেঁয়াজ রসুন ,আলু চিনি ,ডাল সহ সব ধরনের নিত্য পন্য কেজি প্রতি ১০ টাকা থেকে ১২ টাকা বাড়িয়ে বিক্রি করা হচ্ছে। দোকানিরা বলছেন বাজারে করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে ক্রেতারা সব ধরনের পন্যই বেশি বেশি করে কিনে নিচ্ছেন। প্রয়োজনের তুলনায় অনেক বেশি কওে কিন ছেন চাল,যার প্রয়োজন দশ কেজি সে কিনছেন এক বস্তা বা দুই বস্তা। দুইদিন আগেও স¦াভাবিক ভাবে বিক্রি হত আজ দুইদন বিক্রি বেড়ে গেছে দ্বিগুন। তারা আরও বলেন চালৈর বাজার বেশি হওয়ার কারন বাজারে বিক্রি বেড়ে যাওয়া এবং মিলাররা প্রতি বস্তায় চালেল দাম বৃদ্ধি করার কারনে তাদের বেশি দামে কিনতে হচ্ছে ,যে কারনে চাল বেশি দরে বিক্রি করতে হচ্ছে তাদের।
ক্রেতারা বলছেন করান আতঙ্কে তারা বাজার বন্ধ হওয়ার ভয়ে বেশি করে নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য কিনছেন ,বাজারে বিক্রির ভিরের কারনে সব ধরনের পন্যের দামও বেশি নেওয়া হচ্ছে। তারা চাচ্ছেন বাজারে যেন প্রশাসনের নজর রাখা হয় যাতে কোন ধরনের পন্যের দাম বেশি বা মজুদ করে দাম বৃদ্ধি করতে না পারে ব্যবসায়ীরা।
আর খেটে খাওয়া সাধারন মানুষ বলছেন, বাজারের সব ধরনের পন্যের দাম বৃদ্ধি হওয়াতে তারা পন্য কিনতে হিম শিম খাচ্ছেন। প্রতি কেজি পেঁয়াজ গত তিনদিন আগে যেখানে ৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে গতকাল ও আজ তা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা কেজি দরে। বাজারের এ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ক্রেতা সাধারন।

(Visited 1,051 times, 1 visits today)