দৌলতদিয়ায় নদী পাড়ের অপেক্ষায় ৪ শতাধিক যানবাহন আটকা

আজু সিকদার :

D==0140

ঘন কুয়াশার কারণে গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের ব্যস্ততম দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টা ফেরি সার্ভিস বন্ধ ছিল। এসময় যানবাহন ও যাত্রীর পূর্ন লোড নিয়ে দিক হারিয়ে মাঝ নদীতে ৩টি ফেরি নোঙ্গর করে থাকতে বাধ্য হয়। এতে দৌলতদিয়া ঘাটে নদী পাড়ের অপেক্ষায় সিরিয়ালে আটকা পড়ে ৪ শতাধিক বিভিন্ন যানবাহন। আটকে পড়া যানবাহনের যাত্রীরা কনকনে শীতের মধ্যে চরম দূর্ভোগ পোহান।
বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪ থেকে কুয়াশার ঘনত্ব অতিরিক্ত বেড়ে গিয়ে নৌরুটের মার্কিং (বিকন বাতি) অস্পষ্ট হয়ে যায়। এতে দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরিসহ সব নৌযান চলাচল বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। টানা প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টা ফেরি, লঞ্চসহ সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ থাকার পর কুয়াশার ঘনত্ব অনেকটা কমে এলে সকাল পৌনে ১০ টার দিকে পুনরায় রুটে নৌযান চলাচল শুরু হয়। এতেকরে অবরোধ উপেক্ষা করে দৌলতদিয়া ঘাটে আসা ৪ শতাধিক বিভিন্ন যাননাহন আটকা পড়ে। আটকে পড়া যানবাহন ফেরি ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে মহাসড়কের দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত ছিল। আটকে পড়া যানবাহনের মধ্যে টঙ্গির ইজতেমা গামী মুসল্লীবাহি বেশ কিছু বাস রয়েছে। তবে এ বাসগুলোকে অগ্রাধিকার দিয়ে পাড় করছে কর্তৃপক্ষ।
বিআইডব্লিউটিসি’র দৌলতদিয়া অফিসের ব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, নৌরুটে ১২টি ফেরি সচল রয়েছে। দীর্ঘ সময় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় যানবাহন আটকা পড়েছে। এরমধ্যে ইজতেমাগামী ও অন্যান্য যাত্রীবাহি যানবাহন গুলোকে অগ্রাধিকার দিয়ে পাড় করা হচ্ছে।

(Visited 16 times, 1 visits today)