বন্ধ থেকেই নষ্ট হচ্ছে গোয়ালন্দ হাসপাতালের অপারেশনের যন্ত্রপতি

আজু সিকদার :

Goalundo Photo 1

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে অপারেশনের আধুনিক যন্ত্রপাতি থাকলেও দীর্ঘদিন ধরে তা বন্ধ রয়েছে। এতে মূল্যবান এসব যন্ত্রপাতি বন্ধ থেকেই নষ্ট হচ্ছে।
অজ্ঞান বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক (এনেসথেসিষ্ট) না থাকায় অপারেশন থিয়োটারটি চালু করা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। এতে এ উপজেলার লক্ষ লক্ষ মানুষের চিকিৎসা সেবা মারাত্মক ভাবে ব্যহত হচ্ছে।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, প্রতি মাসে গড়ে এ হাসপাতালে দুই থেকে আড়াইশ প্রসুতি চিকিৎসা নিতে আসে। এসকল রোগীর সব ধরনের সেবা প্রদান করেও শেষ পর্যন্ত বেশির ভাগ রোগীকেই ফরিদপুর স্থানান্তর করতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। প্রয়োজনীয় আধুনিক যন্ত্রপাতি থাকা সত্ত্বেও চিকিৎসক না থাকায় হাসপাতালের অপারেশন থিয়োটারটি দীর্ঘদিন বন্ধ থেকে নষ্ট হচ্ছে। এ সুযোগে এখানে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন বেসরকারী ক্লিনিকের শক্তিশালী দালাল চক্র। তারা কোন রোগী আসা দেখলেই রোগীর স্বজনদের নানা ভাবে ফুঁসলিয়ে বিভিন্ন ক্লিনিকে নিয়ে মোটা অংকের কমিশন আদায় করে।
দুই বছর আগে আনুষ্ঠানিক ভাবে উপজেলার চিকিৎসা সেবার একমাত্র ভরসা গোয়ালন্দ হাসপাতাল ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নিত করা হয়। এতে উপজেলাবাসী আশায় বুক বাঁধলেও নানা করণে কাঙ্খিত সেবা পাচ্ছে না তারা। প্রায় সব ধরনের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক সম্প্রতি এখানে যোগদান করেছেন। কিন্তু একজন এনেসথেসিষ্ট না থাকায় ছোট-খাটো সব ধরনের অপারেশনের রোগীকে স্থানান্তর করতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ কে এম তারিক বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, এ হাসপাতালে দ্রুত প্রসুতি সেবা (ইওসি) কার্যক্রম চালু করা প্রয়োজন। অজ্ঞান বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকায় অপারেশন থিয়েটারটি সচল করা যাচ্ছে না। এতেকরে আমরা বাধ্য হচ্ছি অপারেশনের রোগীদেরকে বিভিন্ন হাসপাতাল-ক্লিনিকে স্থানান্তর করতে।

(Visited 24 times, 1 visits today)