রাজবাড়ীর হাসপাতাল ২৫০ শয্যায় উন্নীত করার উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

 

১০ লক্ষাধিক নাগরীকের স্বাস্থ্য সেবার মান নিশ্চিত করার লক্ষে কাগজ কলমে থাকা ১০০ শয্যার রাজবাড়ীর সদর হাসপাতালটি ২৫০ শয্যায় উন্নতী করার উদ্যোগে গ্রহণ করা হয়েছে। এর অংশ হিসেবে রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খান স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে অনুরোধপত্র প্রেরণ করেছেন বলে জানাগেছে।
ওই পত্রের আলোকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করেছে। ইতোমধ্যেই এ হাসপাতালকে ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণের লক্ষ্যে অবকাঠামোগত সুবিধা, জনবল কাঠামো বৃদ্ধি, এমএসআর, পথ্য ও খাদ্যের বরাদ্দসহ অন্যান্য পরিচালন ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে। যা প্রস্তাব আকারে দাখিলের জন্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় হতে সিনিয়র সহকারী সচিব আল মামুন মুর্শেদের স্বাক্ষরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক বরাবরে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।
জানাগেছে, হাসপাতালটি ২০০৩ সালে ৫০ শয্যা থেকে ১০০ শয্যায় উন্নীত করা হয়েছিল কাগজে কলমে। এখনো এ হাসপাতালটি ৫০ শয্যার জনবল দিয়ে পরিচালনা করা হচ্ছে। যদিও সময়ের পরিক্রমায় জেলার জনসংখ্যা বৃদ্ধি, পরিবেশগত পরিবর্তন এবং নানা ধরণের রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি ও জনসাধারণ স্বাস্থ্য সচেতন হওয়ায় এ হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে বহিঃ বিভাগে গড়ে প্রতিদিন ৭ থেকে ৮ শত জন রোগী চিকিৎসা গ্রহণ করছে এবং অন্তঃ বিভাগে গড়ে প্রতিদিন ২শত জন রোগী অবস্থান করে। তবে হাসপাতালে শয্যা সংখ্যার স্বল্পতার কারণে স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম মারাত্মকভাবে বিঘিœত হচ্ছে। অনেক সময় চিকিৎসার জন্য জনসাধারণকে পার্শ্ববর্তী জেলা সদরের হাসপাতালসহ ঢাকাতে যেতে হচ্ছে। যে কারণে গরীব রোগীদের পক্ষে জেলা সদরের বাইরে গিয়ে চিকিৎসা নেয়া সম্ভব হয়না। ফলে স্বাস্থ্য সেবা বঞ্চিত জনসাধারণের মধ্যে হতাশা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। এর প্রতিবাদে এবং ২৫০ শয্যার হাসপাতাল নির্মাণের দাবীতে জেলা সদরের ১০ টি বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের ব্যানারে সুশিল সমাজের প্রতিনিধিরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। আর ওই কর্মসূচী পালনের পর কর্তৃপক্ষের এ উদ্যোগ নেয়।

(Visited 28 times, 1 visits today)