গোয়ালন্দে যুবলীগ নেতা জিন্দারকে কুপিয়ে জখম

গণেশ পাল :

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে রবিবার দুপুরে স্থানীয় পৌর যুবলীগ কার্যালয়ে হানা দিয়ে যুবলীগ নেতা জিন্দার আলী শেখকে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে পালিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এলাকাবাসী সূত্র জানা যায়, গোয়ালন্দ উপজেলার উজানচর দরাপেরডাঙ্গি গ্রামের তমিজ উদ্দিন শেখের ছেলে জিন্দার আলী শেখ (৩০)। তিনি উজানচর ইউনিয়ন যুবলীগের আসন্ন কাউন্সিলে নতুন কমিটির একজন সভাপতি পদপ্রার্থী। পাশাপাশি একই ইউনিয়নের সিদ্দিক মহুরীর ছেলে শরীফুজ্জামান পলাশ সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী। ইউনিয়ন যুবলীগের আসন্ন ওই কাউন্সিলকে ঘিরে বেশ কিছুদিন ধরে তাদের দুজনের মধ্যে বিরোধ চলছিল। ঘটনার দিন আজ রবিবার দুপুরে গোয়ালন্দ বাজার রেলস্টেশন এলাকায় অবস্থিত স্থানীয় পৌর যুবলীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে বসে জিন্দার আলী টেলিভিশনে খবর দেখছিলেন। এমন সময় পলাশের নেতৃত্বে সাত-আটজনের একদল দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে যুবলীগের ওই কার্যালয়ে হানা দেয়। প্রথমে কার্যালয়ের ভিতরে গিয়ে তারা জিন্দার আলীকে ঘিরে ফেলে। পরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জিন্দার আলীকে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে তারা দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে আহত জিন্দারকে উদ্ধার করে প্রথমে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে দ্রুত ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এদিকে ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গোয়ালন্দ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. ইউনুস হোসেন মোল্লা বলেন, ‘ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। তবে দলীয় কোনো কারণে নয়, ব্যক্তিগত পূর্বশত্রুতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে।’
এ ব্যাপারে শরীফুজ্জামান পলাশের সঙ্গে বিভিন্নভাবে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

(Visited 24 times, 1 visits today)