দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে বিক্রিকালে কিশোরী উদ্ধার

আজু সিকদার :

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে শনিবার সকালে বিক্রির সময় ১৩ বছরের এক কিশোরীকে উদ্ধার করেছে এলাকাবাসী। এসময় নারী পাচারকারী চক্রের দালাল আ. কাদের ওরফে রুবেলকে (২২) গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। সে ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলা আখাউড়া উপজেলার মসজিদ পাড়া এলাকার মো. গোলাম সারোয়ারের ছেলে।
উদ্ধার হওয়া কিশোরী জানায়, অভাব অনটোনের সংসারে একটু স্বচ্ছলতার জন্য গার্মেন্টেসে কাজের উদ্দেশ্যে কুমিল্লা থেকে ট্রেনে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথে আখাউড়া স্টেশনে শুক্রবার রাতে তার সাথে পরিচয় হয় নারী পাচারকারী চক্রের সদস্য রুবেলের। রুবেল তাকে গার্মেন্টেসে ভালো চাকরির প্রলভোন দেখিয়ে শনিবার ভোরে দৌলতদিয়ায় নিয়ে আসে। তাকে দৌলতদিয়া রেলস্টেশনে বসিয়ে রেখে যৌনপল্লীতে বিক্রীর তদবির করতে থাকে রুবেল। এসময় স্থানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে রুবেলকে পাকড়াও করে গণধোলাই দিয়ে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ কিশোরীকে উদ্ধার ও রুবেলকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।
গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল খালেক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, গ্রেফতারকৃতের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু পাচার রোধ আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। উদ্ধার হওয়া কিশোরীকে তার অভিভাবকের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

(Visited 19 times, 1 visits today)