গোয়ালন্দে ব্যাংকের ভিতর থেকে ব্যবসায়ীর লাখ টাকা খোয়া

সোনালী ব্যাংকের ভিতর থেকে কৌশলে এক ব্যবসায়ী গ্রাহকের লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত। ঘটনাটি ঘটেছে গত ৩ জুলাই দুপুরে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে।

জানা যায়, গোয়ালন্দ উপজেলার সরূপারচক গ্রামের ভুষামাল ব্যবসায়ী আরশাদ আলী মোল্লা। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে এক লাখ টাকার চেক লিখে তিনি তার আড়ত ঘরের কর্মচারি বার বছরের শিশু কলিম সরদারকে টাকা উত্তোলনের জন্য সোনালী ব্যাংক গোয়ালন্দ বাজার শাখায় পাঠান। ব্যাংকের ভিতরে তখন বিভিন্ন গ্রাহকের প্রচন্ড ভিড় ছিল। এসময় ভিড়ের মধ্যে দ্রুত টাকা উত্তোলন করে দেওয়ার কথা বলে ওই যুবক শিশুটিকে ফুসলিয়ে তার কাছ থেকে চেকটি নিয়ে নেয়। কিছুক্ষণ পর ওই চেক ভাঙ্গিয়ে নগদ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে সুযোগ বুঝে ব্যাংক থেকে দুর্বৃত্ত যুবকটি দ্রুত পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী আরশাদ মোল্লা বলেন, ‘সিসি ক্যামেরাসহ গার্ড থাকা অবস্থায় সুরক্ষিত ব্যাংকের ভিতর থেকে দুর্বৃত্তরা কৌশলে আমার নগদ এক লাখ টাকা নিয়ে পালিয়েছে।’  তবে একজন শিশু কর্মচারি দিয়ে ব্যাংক থেকে লাখ টাকা উত্তোলন করা তার চরম বোকামী হয়েছে বলেও তিনি জানান।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সোনালী ব্যাংক গোয়ালন্দ বাজার শাখার ব্যাবস্থাপক মনোজ কুমার সাহা কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ভিড়ের মধ্যে সুযোগ বুঝে কৌশলে এক গ্রাহকের লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে দুর্বৃত্তরা পালিয়েছে। তবে ব্যাংকের সিসি ক্যামেরায় তোলা ছবি পরীক্ষা করে দেখে দুর্বৃত্তদের শনাক্ত করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।’

(Visited 28 times, 1 visits today)