বসন্তপুরের সাহসী গ্রাম পুলিশ ফিরোজ পেল পুরস্কার

জাহাঙ্গীর হোসেন, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

IMG_0289

: স্কুল ব্যাগের মধ্যে অভিনব কৌশলে ফেনসিডিল পাচারের চেষ্টাকালে সাহসীকতার সাথে মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করায় গ্রাম পুলিশ ফিরোজ মিয়াকে পরস্কৃত করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সকালে রাজবাড়ী সদর থানা প্রঙ্গণে তার হাতে নগদ ২ হাজার টাকার পুরুস্কার তুলে দেন ওই থানার ওসি শাহ্ মোঃ আওলাদ হোসেন। ফিরোজ জেলা সদরের বসন্তপুর ইউনিয়নের একজন গ্রাম পুলিশ সদস্য।

এ সময় থানার সেকেন্ড অফিসার নাজমুল হুদা, এসআই বদিয়ার রহমানসহ জেলা সদরের ১৪টি ইউনিয়ন থেকে আগত দফাদার ও গ্রাম পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
জানাগেছে, গত ৯ অক্টোবর ভোরে ফজরের নামাজ আদায় করে জেলা সদরের বসন্তপুর ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামের মুসুল্লীরা করছিলেন সড়কে হাটাহাটি। এ সময় তাদের পাশ দিয়ে দুই জন আরোহির একটি মোটরসাইকেল রাজবাড়ী জেলা শহরের দিকে দ্রুত গতিতে ছুটে যায়। দেখে মনে হচ্ছিল মোটরসাইকেল চালক তার পেছনে বসে থাকা স্কুল ব্যাগ বহণকারীকে পৌছে দিতে যাচ্ছেন কোন প্রাইভেট টিউটরের কাছে। তবে বিধিবাম মোটরসাইকেলটির পেছনের চাকা হয় পানচার। সেই সাথে দু’আরোহীই পরে গিয়ে স্বল্প পরিমানে হন আহত। স্থানীয়রা ছুটে এগিয়ে আসেন তাদের উদ্ধারে। তবে সেদিকে খেয়াল না দিয়ে জেলা শহর সংলগ্ন মিজানপুর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদপুর গ্রামের তাহের আলী সেখের ছেলে চালক লিটন সেখ (২২) উঠে দাঁড়ান। তিনি পেছনের যুবকের পিঠে থাকা স্কুল ব্যাগটি দ্রুততার সাথে নিজের হেফাজতে নিয়ে মোটরসাইকেল এবং ওই যুবককে ফেলে রেখে একা উঠে পরেন রিকশা ভ্যানে। বিষয়টি স্থানীয়দের মনে দাগকাটে এবং তাদের সন্দেহ হয় ওই স্কুল ব্যাগের মধ্যে কোন না কোন অবৈধ দ্রব্য রয়েছে। তারা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে দু’কিলো মিটার দুরে থাকা কোলারহাট বাজারে অবস্থানরতদের বিষয়টি অবহিত করেন।
গ্রাম পুলিশ ফিরোজ মিয়া জানান, খবর পেয়ে তিনিও ছুটে আসেন কোলারহাট বাজারে। অপেক্ষায় থাকেন রিকশা ভ্যানটি আসার। এক পর্যায়ে ভ্যানটি তাদের কাছে আসে এবং আরেহী লিটন সেখকে তারা আটক করে স্কুল ব্যাগের মধ্যে কি আছে তা জানতে যান। তবে লিটন কৌশলে কলেজ ছাত্রের ন্যায় বই খাতা থাকার বিষয়টি অবহিত করে ব্যাগটি তল্লাশী করতে না দেয়ার বাহানা শুরু করে। এক পর্যায়ে এলাকাবাসীর সহযোগীতায় তিনি ব্যাগটির চেন খোলেন এবং ওই ব্যাগের মধ্যে বই, খাতা, কলমের পরিবর্তে রয়েছে থরে থরে সাজানো রয়েছে ৮০ বোতল ফেনসিডিল। সে সময়ই লিটনকে তিনি গাছের সাথে বেঁধে রেখে সংবাদ দেন সদর থানার ওসিকে।
রাজবাড়ীর থানার ওসি শাহ্ মোঃ আওলাদ হোসেন বলেন, গ্রাম পুলিশ সদস্য ফিরোজ অত্যান্ত সাহসী করার মাধ্যমে মাদক ব্যবসায়ী লিটনকে ৮০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করেছে। তার এ সাহসীকতাকে স্বাগত জানিয়ে এবং অন্যান্য গ্রাম পুলিশ সদস্যদের উদ্বদ্ধু করতেই পুরস্কৃত করা হলো।

(Visited 31 times, 1 visits today)