কালুখালীর চরাঞ্চলের মানুষ স্বাস্থ্যসেবা বঞ্চিত

শহিদুল ইসলাম :

0969

মানুষের মৌলিক চাহিদার অন্যতম স্বাস্থ্যসেবা। এ থেকে রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার চরাঞ্চলের ৫ সহ¯্রাধিক মানুষ বঞ্চিত রয়েছে। বিষয়টির প্রতি ভ্রুক্ষেপ নেই উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

জানা গেছে, কালুখালীর রতনদিয়া ইউনিয়নের চরাঞ্চলের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের লক্ষে ২০১৩ সালে কৃষ্ণনগর কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠিত হয়। এ ক্লিনিক প্রতিষ্ঠার পর এলাকার ৭ গ্রামের মানুষ আশায় বুক বেঁধেছিল তারা ঠিকমত স্বাস্থ্যসেবা পাবে। কিন্তু সে আশা পূর্ন হলো না।
কালুখালী উপজেলার সর্বত্র জমজমাটভাবে কমিউনিটি ক্লিনিক পরিচালিত হলেও কৃষ্ণনগর কমিউনিটি ক্লিনিকের বেহাল দশা। এখানে কখনো ডাক্তার আসে না। কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার নয়ন বিশ্বাসকেও কখনো দেখেনি এখানকার মানুষ।
সোমবার সকালে এ প্রতিনিধির সাথে কৃষ্ণনগর কমিউনিটি ক্লিনিকের সামনে কথা হয় মমতাজ বেগম,সখিনা খাতুন, মরিয়ম বিবি, রোজিনা খাতুন, জেছমিন আক্তার, রাশিদা পারভীন, রেশমা খাতুন, মর্জিনা খাতুন, চম্পা খাতুন, তাছলিমা আক্তার, জাহানারা বেগম,আছিয়া খাতুন,সামেলা খাতুন,রহিমা খাতুন সহ আরো অনেকের।
তারা এ প্রতিনিধিকে জানায়, সরকার আমাদের জন্য হাসপাতাল দিল। কিন্তু ডাক্তার দিল না। কেউ এখানে আসে না। আমরা কি ক্লিনিক ধুয়ে পানি খামু।
এলাকাবাসী জানান, এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প, কর্মকর্তা ডাঃ শ্যামল পোদ্দারকে বহুবার অবগত করেছি কিন্তু উনি কোন পদক্ষেপ নেননি। উনি আমাদেরকে পাঠান সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক সুশীল রাহার নিকট। সুশীল রাহার কাছে গেলে উনি বলেন পরে আসেন।
সম্প্রতী চরাঞ্চল থেকে বন্যার পানি নেমে গেছে। ফলে অধিকাংশ মানুষ সর্দি, জ্বর ও ডায়রিয়া আক্রান্ত। এসব রোগের ওষুধ নিতে এখানে শত শত মানুষ ভিড় করলেও কাউকে পাচ্ছে না। তারা প্রতিদিন নিরাশ হয়ে বিনা ওষুধেই ঘরে ফিরছেন।

(Visited 20 times, 1 visits today)