কালুখালীতে দূর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে প্রাণ গেল ৭৫ মেহগনী গাছের

শহিদুল ইসলাম :

Rajbari- (4)- 14.08.2015

দূর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার মদাপুর ইউনিয়নের দূর্গাপুরে এক কৃষকের বাগানের ৭৫টি মেহগনী গাছের প্রাণ যাবার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার সকালে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক আকরাম আলী খা জেলার কালুখালী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
মেহগনি বাগানের মালিক আকবার আলী খাঁ জানান, সরকারের বৃক্ষরোপন কর্মসূচী সফল করতে তিনি ২০১১ সালে মদাপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর মৌজার (শৈলমারা মাঠে) ৮৫ নং দাগের ৩০ শতাংশ জমিতে দেড় শতাধিক মেহগনি চারা রোপন করেন। অনেক প্রতিকুলতা সহ্য করে চারা গুলো এখন বড় গাছ হবার লক্ষে সতেজ হয়ে উঠেছে। এরই মাঝে গত বুধবার রাতে অজ্ঞাত পরিচয়ের দূর্বৃত্তরা ৭৫ টি চারা কেটে ফেলেছে। এতে করে তার বাগানটি এখন ধ্বংস হবার উপক্রম হয়েছে। ওই দূর্বৃত্তদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার জন্য কালুখালী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
মদাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সালিস সহায়িকা ঝুমা রানী জানান, ইতিপূর্বেও দুর্বত্তরা দুর্গাপুর মৌজার শৈলমারা মাঠের কৃষক খালেক ও মালেকের লিচু বাগান, আয়ুব আলীর আম বাগান, চৈতন্য ও সাধনের বেগুন ক্ষেত ধ্বংস করেছে। দুর্বৃত্তদের অত্যাচারে ওই সব কৃষকেরা পথে বসার উপক্রম হয়ে পরেছেন।
স্থানীয় মকছেদ আলী বলেন, দুর্বত্তদের দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য কৃষি সম্প্রসারন অফিসের পক্ষ থেকে ভর্তুকী দিলে কৃষকরা পুনরায় বনায়নে উৎসাহ পেত। তিনি মদাপুর ইউপির দুর্গাপুর মৌজার শৈলমারা মাঠে কৃষকদের উঠতি ফসল ও বক্ষ নিধন সরকারী ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের বনায়ন ব্যবস্থা করার জন্য উপজেলা কৃষি অফিস ও রাজবাড়ী হর্টিকালচার সেন্টার কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেন।
কালুখালী উপজেলা ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি কমরেড নজরুল ইসলাম, মদাপুর ইউপির দুর্গাপুর মৌজার শৈলমারা মাঠে কৃষকদের উঠতি ফসল ও বক্ষ নিধনের ঘটনার নিন্দা জানান। তিনি ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরনের জন্য জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষন করেন।
কালুখালী থানার অফিসার ইনচার্জ নুরে আলম ফকির জানান, কৃষকদের উঠতি ফসল ও বক্ষ নিধনকারীদের গ্রেপ্তারের জোর প্রচেষ্টা চলছে।

(Visited 19 times, 1 visits today)