এ কেমন নির্মমতা ! রাজবাড়ীর খানখানাপুর থেকে বস্তাবন্দী বৃদ্ধা উদ্ধার-

আজু সিকদার, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন রাস্তার পাশ থেকে স্থানীয়রা প্রায় ৭০ বছর বয়সী বস্তাবন্দি এক বৃদ্ধাকে উদ্ধার করেছে। পরে ওই বৃদ্ধাকে জেলার গোয়ালন্দ উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
গতকাল শনিবার ওই হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায় অজ্ঞাত ওই বৃদ্ধা হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডের বারান্দার এক কোণে ফেলা বিছানায় পড়ে আছেন। তাকে ঘিরে উৎসুক নারী-পুরুষের বেশ জটলা। গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শরীফুল ইসলাম ও মির্জা তানজির নামের দুই যুবক তাকে এ হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন। তারা ওই বৃদ্ধাকে রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের বারান্দা পাশের রাস্তায় ওই দিন সন্ধ্যার পর কে বা কারা তাকে বস্তাবন্দী করে ফেলে রেখে যায়। স্থানীয়দের ধারণা বৃদ্ধার পরিবারের কেউই তাকে এখানে ফেলে রেখে যেতে পারে।
হাসপাতালের পরিচ্ছন্ন কর্মী মনোয়ারা বেগম ও গোলাপী বলেন, এই বৃদ্ধা প্রসাব-পায়খানা করে তার সারা শরীর নোংরা করে ফেলেছিল। কিছুক্ষণ আগে আমরা তাকে গোসল করিয়ে আনলাম। তাকে বহু প্রশ্ন করলেও কোন কথা বলছেন না। চোখে মুখে তার অনেক কষ্ট ফুটে উঠেছে। কেউ কিছু দিলেও খাচ্ছেন না।
বৃদ্ধাকে হাসপাতালে আনা যুবক শরীফুল ইসলাম জানান, খানখানাপুর থেকে বাড়ী ফেরার পথে ভূমি অফিসের বারান্দায় জটলা দেখে এগিয়ে যাই। দেখি জরাজীর্ণ একটি কাপড় পড়া অসুস্থ্য ওই বৃদ্ধা পড়ে আছে। এলাকার কয়েকজন জানান, এই মহিলাকে বস্তাবন্দী অবস্থায় রাস্তার ধারে কেউ ফেলে রেখে গিয়েছিল। তার গোঙরানীর শব্দে কয়েকজন টের পেয়ে এখানে তুলে আনেন। পরে আমরা কয়েকজন উদ্যোগ নিয়ে ভ্যানে করে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসি।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আজিজুর রহমান খান জানান, ওই বৃদ্ধার আরো উন্নত চিকিৎসা দরকার। যা ব্যয়বহুল। এ জন্য আমরা তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সেখানে সমাজ সেবা অধিদপ্তর থেকে তার চিকিৎসার বিষয়ে সহযোগিতা পাওয়া যাবে। এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ওই বৃদ্ধা নিশ্চয়ই কোন পরিবারের সদস্য। তার প্রতি এমন নিষ্ঠুর আচরণ সবাইকে হতবাক করেছে।

(Visited 811 times, 1 visits today)