কালুখালীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র জিল্লুর রহমানের মৃত্যু –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

ঈদের ছুটি কাটাতে রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়নের কালিনগর গ্রামের বাড়ীতে বেড়াতে এসেছিল ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের ৪র্থ বর্ষের মেধাবী ছাত্র মোঃ জিল্লুর রহমান (২৩)। তবে তার আর বিশ^বিদ্যালয়ে ফিরো যাওয়া হলো না। গত রবিবার রাত ১১ দিকে তিনি না ফেরার দেশে চলে যান। জিল্লু মৃত শহিদুল ইসলাম এর একমাত্র পুত্র।
পারিবারিক ভাবে জানা যায় জিল্লু ভাসির্টি থেকে ঈদের ছুটিতে বাড়ি এসে হঠাৎ ঐ দিন শারীরিক ভাবে অসুস্থ্য হয়ে পরলে তাৎক্ষনিক তাকে পাংশা হাসপাতালে নেওয়া হয়। শরীরের অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষার পর জানা যায় সে বি ভাইরাস জনিত রোগে আক্রান্ত। বিধিবাম কিছুই করার নেই নিয়তির খেলায় তাকে ঐ দিন রাত ১১ টার দিকে না ফেরার পথে পারি জমাতে হয়। এ সংবাদ মোবাইল যোগে আসার সাথে সাথে পারিবারিক এবং আতিœয় স্বজনের আহাজারিতে এলাকার আকাশ-বাতাস ভারি হয়ে যায়। সংবাদে ভাসির্টির শত শত ছাত্র এবং এলাকা বাসি জিল্লুর গ্রামের বাড়িতে তাকে এক নজর দেখার জন্য ভীর জমায়।
জিল্লুর মামা সাংবাদিকদের সাথে কান্না জরিত কন্ঠে বলেন, জিল্লুকে হাসপাতালে নেওয়ার সময় বলেছিল মামা, আমি মনে হয় বাঁচবো না তবে আমার একটি বোন ও মাকে দেখে রাখবেন। এ কথা বলে মামা কান্নায় ভেঙ্গে পরেন। ছেলের অকাল মৃত্যুতে মায়ের আহাজারি স্বামীর মৃত্যুর পর তার একমাত্র সহায় সম্বল ছিল জিল্লু। তার অকাল মৃত্যুতে মায়ের আর কোনো আশা রইল না। দীর্ঘ শাস ছেরে শুধু ছেলের নাম বারা বার মুখে ধারন করে বলেন, তোমরা ওকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছ, আমাকে এক নজর দেখতে দাও। মা ও পরিবারের লোকের কান্নায় হৃদয় বিদরক দৃশ্যর অবতারনা সৃষ্টি হয়। পর দিন বেলা ১২ টায় জিল্লুকে এলাকার বাংলাদেশ হাট ঈদগাহ ময়দানে অধ্যক্ষ মাওলানা মোঃ নুরুল ইসলাম এর ঈমামতিতে যানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় কালুখালী কলেজের অধ্যক্ষ এ.কে.এম জয়নাল আবেদিন, রাজবাড়ী জেলা বি.এন.পির সাধারন সম্পাদক মোঃ হারুন-অর রশিদ (হারুন), সহ-সভাপতি মোঃ লুৎফর রহমান খান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সহকারী অধ্যাপক মোঃ মিজানুর রহমান, সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক মোঃ ছামসুল আলম, পাংশা বাজার শিল্প ও বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক সমাজ সেবক মোঃ বাহারাম সরদার, বোয়ালিয়া ইউপি আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ সফিকুল ইসলাম আজাদ, আবু সাঈদ মোল্লা নিলু মাষ্টার, মোঃ আবু বকর স্থানীয় মোঃ আফসার উদ্দিন সিকদার, আব্দুস সোবাহান মোল্লা, ওমর আলী আদু, বিশু মন্ডল এছাড়াও ছাত্র দল নেতা মেহেদী হাসান তোতা ও মৃত জিল্লর একান্ত বন্ধু আজমত ও অন্যান্য সহপাঠি সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। জানাজা নামাজ শেষে তাকে বাংলাদেশ হাট গুলবাগের গোরস্থানে দাফন কার্য সম্পূর্ণ করা হয়।

(Visited 1,525 times, 1 visits today)