ব্যাতিক্রমী আয়োজনে বালিয়াকান্দিতে ‘বৃদ্ধ সম্মেলন’ অনুষ্ঠিত –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

Baliakandi Picturs-01

“পিতা-মাতার চরণ ধৌতজল স্বর্গের ফল”-এ শ্লোগান নিয়ে এবারও রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জঙ্গল ইউনিয়নের আকপোটরা রাসখোলা মন্দির প্রাঙ্গনে ষাটার্ধো বয়সী বৃদ্ধদের নিয়ে ‘বৃদ্ধ সম্মেলন’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ আয়োজন করেন, গত সোমবার সন্ধ্যায় একই ইউনিয়নের সমাধিনগর আর্য্য সংঘ বিদ্যা মন্দির উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নারদ কুমার বাছাড়।
এ সম্মেলনের প্রথা অনুযায়ী শুরুতেই সমাবেশে আগত বৃদ্ধরা একে অপর এবং পারিবার পরিজনের খোঁজ খবর নেন। সেই সাথে অনেকেই আবেগে আপ্লুত হয়ে জড়িয়ে ধরেন, ছাড়েন চোখের পানি। কেউ বা আবার ছেলে বেলার নানা রকম দুষ্টামির কথা মনে করিয়ে দিয়ে অট্ট হাঁসিতে ফেটে পরেন। তাদের হাঁসি ঠাট্টা ও আনন্দময় উপস্থিতির কারণে সেখানে এক অভূতপূর্ব পরিবেশের সৃষ্টি হয়। আর এ মিলন মেলা দেখে এলাকার নারী, শিশু, কিশোর ও যুবকরা হন মুগ্ধ এবং উজ্জিবিত। অনুষ্ঠান শেষে আগত কয়েক শতাধিক বৃদ্ধকে করানো হয় মিষ্টি মুখ।
জঙ্গল ইউনিয়নের আকপোটরা রাসখোলা মন্দির কমিটির কর্মকর্তা কার্তিক চন্দ্র সিংহের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন, উদ্যোগতা প্রধান শিক্ষক নারদ কুমার বাছাড়। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য বিভুতি ভুষন সিংহ, অবসরপ্রাপ্ত উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা বিকাশ রঞ্জন বিশ্বাস, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কুমারেশ চন্দ্র মন্ডল, বিনয় কৃষ্ণ বৈন্নব, অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য জনৈক কুমার বিশ্বাস, কানাই লাল দাস, আনন্দ মোহন অধিকারী, পারুলিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রুপচাঁদ ঘোষ প্রমুখ।
বক্তারা প্রতি বছর এ আয়োজন করার জন্য শিক্ষক নারদ কুমার বাছাড়কে ধন্যবাদ জানান। একই সাথে তারা বলেন, প্রতিটি এলাকায় বছরে অন্তঃত একটি দিনের জন্য বয়োবৃদ্ধদের নিয়ে সমাবেশ করা প্রয়োজন। এতে শিশু, কিশোর ও যুবকরা নৈতিক শিক্ষা পাবে এবং বৃদ্ধরা প্রাণ খুলে এতে অপরের সাথে কথা বলতে পারবেন। সেই সাথে কারো মনে যদি কোন কারণে কষ্ঠ বোধ থাকে তাও দুর হবে।
উদ্যোক্তা নারদ কুমার বাছাড় জানান, এলাকার কিশোর ও যুব সমাজের মধ্যে নৈতিক শিক্ষার প্রসার ঘটনানোর উদ্দেশ্যে তিনি ২০১৪ সাল থেকে এ আয়োজন করে আসছেন। প্রতি বছর এ দিনে এলাকার প্রতিটি বাড়ীর ৬০ বছরের উপরে বয়সী বৃদ্ধররা এখানে সমবেত হন। তারা নিজেদের মধ্যে ভাব বিনিময় করেন। গল্প করেন প্রাণ খুলে। বয়োবৃদ্ধদের এমন হাঁসি মাখা মুখ কার না দেখতে ভাল লাগে। তাই তিনি এ বৃদ্ধদের নিয়ে ব্যাতিক্রমী এ উদ্যোগ গ্রহণ করে আসছেন।

(Visited 73 times, 1 visits today)