ঢাকাThursday , 2 June 2022

কালুখালীতে স্কুল শিক্ষককে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম

Link Copied!

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীদেরকে সমর্থন করার জের ধরে নানা ধরণের হুমকী-ধামকীর পর এবার মোঃ আক্তারুজ্জামান নামে একজন স্কুল শিক্ষককে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাতœক জখম করা হয়েছে। তাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


আক্তারুজ্জামান রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার মাজবাড়ী ইউনিয়নের কোমরপুর গ্রামের মৃত তাইজল হোসেনের ছেলে। তিনি একই ইউনিয়নের মাজবাড়ী হুরুননেছা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্তরত রয়েছেন।
রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি থাকা স্কুল শিক্ষক মোঃ আক্তারুজ্জামান জানিয়েছেন, বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীদের তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা সরাসরি সমর্থন প্রদান করেন। এতে ক্ষিপ্ত হন বিদ্রোহী প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা। তারা ওই সব নির্বাচনের আগে থেকেই তাকে নানা রকম ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে আসছিলো। তবে তিনি তাতে কর্ণপাত করেন নি। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিনি নিজ বাড়ীর অদূরে সোরাপুর মোড় এলাকায় আসেন। সেখানে কতিপয় ব্যক্তির সাথে কথাবলা কালিন পেছন থেকে একদল দূর্বৃত্ত অতর্কিত ভাবে ধারালো অস্ত্র ও হাতুড়ি নিয়ে হামলা চালায়। এতে তার ডান পা কুপিয়ে এবং হাতুড়ি দিয়ে বেধরক পিটিয়ে জখম করে। তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। বর্তমানে তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছেন।


কালুখালী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান কাজী সাইফুল ইসলাম জানিয়েছেন, যারা শিক্ষক আক্তারুজ্জামানের উপর হামলা চালিয়েছে তারা এই এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। এলাকা অশান্ত করতে তারা প্রতিনিয়ত চেষ্টা চালাচ্ছে। তিনি এই হামলার তীব্র নিন্দা জানানোর পাশাপাশি ওই সব সন্ত্রাসীদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেপ্তারেরও দাবী জানান।


কালুখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হাসান জানিয়েছেন, খবর পেয়ে থানা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে যান। তবে ওই ঘটনায় বিকাল পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

(Visited 199 times, 1 visits today)