এসপি’র স্থাপিত সিসি ক্যামেরার সাফল্য, দৌলতদিয়া ঘাটে ১ ঘন্টার মধ্যে চোরসহ মালামাল উদ্ধার –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

দৌলতদিয়া ঘাট এলাকার শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে রাজবাড়ীতে যোগদানের পর পরই পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম সেখানে স্থাপন করেন সিসি ক্যামেরা। আর ওই সিসি ক্যামেরা স্থাপনের পর পরই পাল্টে গেছে ঘাট এলাকার দৃশ্যপট। ঘাট এলাকার দালাল, চাঁদাবাজ, চোর, ছিতাইকারীসহ অপরাধীরা পরেছেন বিপাকে। অনেক অপরাধীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। যার অংশ হিসেবে স্থাপিত ওই সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে মাত্র এক ঘন্টায় খোয়া যাওয়া মালামাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যায় মালামাল হাতে পেয়ে খুশিতে আত্মহারা মনোয়ারা বেগম (৫০)। তিনি ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার পীরেরচর গ্রামের মৃত আওয়াল ফকিরের স্ত্রী।
জানা যায়, মনোয়ারা বেগম শনিবার বিকেলে ফরিদপুর থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। তার মালামাল বহনের জন্য দৌলতদিয়া ঘাটে বাস থেকে নেমে একজন কুলি ঠিক করেন। কুলির মাথায় মালামাল দেয়ার পর তিনি তাকে হারিয়ে ফেলেন। বিষয়টি তিনি দ্রুত দৌলতদিয়া পুলিশ বক্সে কর্তব্যরত পুলিশকে জানালে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করেন। দ্রুত সময়ের মধ্যে মোস্তফা নামের ওই কুলিকে সনাক্ত করে পুলিশ।
মোস্তফার খোঁজে পুলিশ লঞ্চঘাটে তল্লাশি করে। সেখানে দেখা যায় মোস্তফা ওই মালামাল নিয়ে লঞ্চঘাটেই বসে আছে। পরে খোয়া যাওয়া মালামাল রাজবাড়ীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফজলুল করিম, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি আশিকুর রহমান মালিককে বুঝিয়ে দেন।
গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি আশিকুর রহমান পিপিএম জানান, কম্বল, মোবাইল ফোন, ব্যাবহৃত কাপরসহ অন্যান্য মালামাল হারিয়ে ফেলে। মূলত মোস্তফা নামের ওই কুলি কিছুটা মানুসিক প্রতিবন্ধি। মালামাল নিয়ে দু’জন দু’জনকে হারিয়ে ফেলে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে মাত্র ১ ঘন্টার মধ্যে মালিককে তার মালামাল বুঝিয়ে দেয়া হয়।
তিনি আরো জানান, রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান পিপিএম মহোদয়ের উদ্যোগে গত ১৫ জানুয়ারী দৌলতদিয়া ঘাটের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান সিসি ক্যামেরার উদ্বোধন করেন। ইতিমধ্যে এই উদ্যোগের সুফল পেতে শুরু করেছে দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে চলাচল কারী মানুষ।

গোয়ালন্দে চুরি হওয়া মালসহ চোর গ্রেপ্তার

গোয়ালন্দে দিন-দুপুরে চুরি হওয়া মালামাল সহ কয়েক ঘন্টার মধ্যে রিপন (২৫) নামের এক চোরকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। সে ফরিদপুর কোতোয়ালী থানার আইজদ্দিন মাতবরের ডাঙ্গি গ্রামের একলাস মিয়ার ছেলে। এসময় চুরি হওয়া আংশিক স্বর্ণালংকার উদ্ধার করা হয়েছে।
গোয়ালন্দ ঘাট থানার এসআই শহর আলী জানান, শুক্রবার বিকেলে উপজেলার ছোটভাকলার কাটাখালীতে ঘরের তালা ভেঙে স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান সামগ্রী নিয়ে যায় চোরেরা। ক্ষতিগ্রস্থ ব্যাক্তি বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে রাতেই খোয়া যাওয়া আংশিক মালামাল উদ্ধার সহ রিপন নামে এক চোরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় আরো দুই চোর পালিয়ে যায়। তাদেরকে গ্রেপ্তার করা গেলে চুরি যাওয়া সকল মালামাল উদ্ধার করা সম্ভব হবে বলে তিনি জানান।

(Visited 240 times, 1 visits today)