রাজবাড়ীতে স্বামীকে অপহরণের অভিযোগ, সাবেক স্ত্রীসহ আটক দুই –

রুবেলুর রহমান, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

ভালবেসে বিয়ে এবং ৮ মাস আগে হয় ডিভোর্স। রাজবাড়ীতে সেই ডিভোর্স স্ত্রী মোছাঃ শান্তা পারভীনের সহযোগিতায় সাবেক স্বামী রনি বিশ্বাস (২৪) কে অপহরণ করে মোবাইলের মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা মুক্তিপন দাবী করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) দুপুরে এ ঘটনায় অপহৃত রনি বিশ্বাসের মা নাছিমা বেগম বাদী হয়ে রাজবাড়ী সদর থানায় ৭ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ২/৩ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার আসামীরা হলো, সদর উপজেলার বরাট ইউপির ভবদিয়া গ্রামের ইমারত মোল্লার মেয়ে (রনির সাবেক স্ত্রী) মোছাঃ শান্তা পারভীন (২১), ভবানীপুরের ফারুক মোল্লার ছেলে তানভীর মেহেদী (২২), বেড়াডাঙ্গার আলাল ওরফে জালালের ছেলে হেমায়েত উদ্দিন হিমু (২৩), পিতা অজ্ঞাত মোঃ আলিফ (২৩), পাবলিক হেলথ সজ্জনকান্দার রাকিব (২০), বিনোদপুর কলেজ পাড়ার হিমেল (২১), বিনোদপুরের দ্বীপ (২১)সহ ২/৩ জন অজ্ঞাতনামা।
পুলিশ গতকাল রাতেই অপহরণের মুল হোতা রনির সাবেক স্ত্রী শান্তা পারভীন ও তার এক সহযোগি তানভীর মেহেদীকে আটক করেছে।
অপহৃত রনি বিশ্বাস জানান, সে ফরিদপুরের কোতয়ালী থানার চক ভবানীপুরের মোহাম্মদ বিশ্বাসের ছেলে। ২০১৮ সালের মার্চে ভালবেসে রাজবাড়ী ভবদিয়ার ইমারত মোল্লার মেয়ে শান্তা পারভীনকে বিয়ে করেন। পরে নানা কারণে ৮ মাস আগে দুজনের ডিভোর্স হয়ে যায় এবং এরপর তাদের মধ্যে কোন যোগাযোগ হয়নি। গত ১০ ডিসেম্বর রাজবাড়ীর বেগাছিতে তার মামাতো ভাইয়ের বিয়ে অনুষ্ঠান উপলক্ষে সেখানে আসেন। হঠাৎ তার সাবেক স্ত্রী শান্তা ফোন করে রাজবাড়ীতে আসতে বলে। কিন্তু তিনি তখন রাজবাড়ীতে আসতে অস্বীকৃত জানান এবং ফোন কেটে দেন। পরবর্তীতে সে আবার ফোন দিয়ে কান্নাকাটি করে। ডিভোর্স হলেও তাকে ভালবাসতেন। যে কারণে গতকাল (১৩ ডিসেম্বর) শুক্রবার বিকাল সে রাজবাড়ী রেলগেট ওভারব্রীজের নিচে দেখা করেন। সেখান থেকে ঘুরতে ঘুরতে স্টেশনে যান। সে সময় শান্তা বলে ক্ষুদা লেগছে কিছু খেতে হবে। পড়ে সেখান থেকে জেলা স্কুলের সামনে পৌর নিউ মার্কেটের চিলিজ রেস্টুরেন্টে যান। সেখানে খাওয়া দাওয়ার সময় শান্তা তার সহযোগীদের খবর দেন। এক পর্যায় খাওয়া শেষে তার সাথে কিছু কথা আছে বলে রেস্টুরেন্টে ছাদে নিয়ে ৫ থেকে ৭ জন তাকে মারধর করে পকেটে থাকা নগদ ৭ হাজার টাকা নিয়ে যায় এবং তার বাসায় ফোন করে ১০ হাজার টাকা মুক্তিপন দাবী করে । পড়ে বিকাশের মাধ্যমে সাড়ে ৯ হাজার টাকা নেয়। সে সময় তার শরীরের বিভিন্নস্থানে সিগারেটের আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় তার সাবেক স্ত্রীসহ অন্য সহযোগীরা। এ ঘটনায় তার মা নাছিমা বেগম বাদী হয়ে রাজবাড়ী সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার বাদী নাছিমা বেগম জানান, গতকাল শুক্রবার বিকালের তার ছেলের মুক্তিপন হিসেবে মোবাইলে ১০ হাজার টাকা দাবী করা হলে সাড়ে ৯ হাজার টাকা দেন এবং পড়ে ছেলের খোঁজে রাজবাড়ী পান্না চত্তর এলাকায় আসলে তার ছেলের সাবেক স্ত্রী শান্তা ও মামলার ২ নম্বর আসামীকে ঘুরাঘুরি করতে দেখে সন্দেহ হয় এবং তার ছেলের বিষয়ে জানতে চায়লে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। সে সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদের আটক করে পুলিশে দেন। পরে পুলিশ এসে রেস্টুরেন্টের ছাদ থেকে তার ছেলে রনিকে উদ্ধার করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ আতাউর রহমান জানান, এ ঘটনায় ৭ জনের নাম উল্লেখসহ ২/৩ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। এরমধ্যে মামলার ১ ও ২ নম্বর আসামীকে আটক করা হয়েছে এবং অন্য আসামীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

(Visited 364 times, 1 visits today)