দৌলতদিয়ায় কথিত স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে যৌনকর্মীর আত্মহত্যা –

শামিম শেখ, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 

কথিত স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে গোয়ালন্দে উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লী মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাথী আক্তার (২৮) নামে এক তরুনী গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। সে পল্লীর খুশী বাড়ীওয়ালীর বাড়ীর ভাড়াটিয়া ছিল। নিজ ঘরের আড়ার সাথে গলায় প্লাস্টিকের রশি পেঁচিয়ে সে আত্মহত্যা করে।
পল্লী সূত্রে জানা গেছে, সাথী প্রচুর পরিমাণে নেশা করতো। ঠিকমত আয় রোজগার করতে না পারা নিয়ে তার কথিত স্বামী সাহিনের সাথে প্রায়ই ঝগড়া লাগতো। সাহিনের বাড়ী রাজবাড়ী সদর উপজেলার গোয়ালন্দ মোড়ে। সে মোড়ে পণ্যবাহী যানবাহনের সিরিয়ালের চাঁদা আদায়কারী হিসেবে কাজ করে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সাহিন সাথীকে পল্লীর ভিতর বেদম মারপিট করে। এরপর সে নিজের ঘরে গিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়। প্রায় ১ ঘন্টা পর আশপাশের মেয়েদের সন্দেহ হলে তারা সাথীকে ডাকাডাকি করতে থাকে। কিন্তু কোন সাড়া শব্দ না পাওয়ায় তারা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দরজা ভেঙে সাথীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানার এসআই শরিফুল ইসলাম জানান, সাথীর আত্মহত্যার ব্যাপারে আমাদের কাছে সঠিক কোন তথ্য নেই। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে।

(Visited 496 times, 1 visits today)