খানখানাপুর থেকে ১০ টাকা কেজির ১০ বস্তা চাউল উদ্ধার, চক্রের কাটসাজি থামছে না –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

“শেখ হাসিনার বাংলাদেশ ক্ষুদা হবে নিরুদ্দেশ, খাদ্য বান্ধব কর্মসূচী, খাদ্য মন্ত্রণালয়” লেখা প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ তহবিল থেকে প্রাপ্ত দরিদ্র বান্ধব কর্মসূচীর ১০ টাকা কেজি ১০ বস্তা চাউল অবৈধ ভাবে বেশি দামে বেচা-কেনার কালে রাজবাড়ীতে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ডিলারসহ ২ জনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী থানায় গতকাল শুক্রবার সকালে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
এ মামলার আসামিরা হলো, সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের উজান খানখানাপুর গ্রামের মৃত অমল কুমার শীলের ছেলে ও এ কর্মসূচীর খানখানাপুর ইউনিয়নের ডিলার রতন শীল (২৫) এবং খানখানাপুর কুন্ডুপাড়া গ্রামের মৃত নিরাবন কুন্ডু ওরফে বুদেশ^র কুন্ডর ছেলে ব্যবসায়ী জীবন কুন্ড (৫০)।
এ মামলার বাদী ও সদর উপজেলার খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই মাসুদুর রহমান জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনি জানতে পারেন, “শেখ হাসিনার বাংলাদেশ ক্ষুদা হবে নিরুদ্দেশ, খাদ্য বান্ধব কর্মসূচী, খাদ্য মন্ত্রণালয়” লেখা প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ তহবিল থেকে প্রাপ্ত দরিদ্র বান্ধব কর্মসূচীর ১০ টাকা কেজি চাউল নির্ধারিত কার্ডধারীদেও মধ্যে বিক্রি না করে ডিলার রতন শীল তা উচ্চ মূল্যে বিক্রি করে দিয়েছে। ওই সংবাদের ভিত্তিতে খানখানাপুরের ব্যবসায়ী জীবন কুন্ডুর ভাড়া দোকানে তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করেন। ওই সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডিলার রতন শীল ও ক্রেতা জীবন কুন্ডু পালিয়ে যান। সেখান থেকে ৩০ কেজি ওজনের ১০ বস্তা চাউল উদ্ধার করা হয়।
রাজবাড়ী থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, ওই ঘটনায় রাজবাড়ী থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ৪ অক্টোর সন্ধ্যায় সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নের মহারাজপুরের গ্রামের জনৈক মুদি দোকানদার শাহিন শেখ দোকান থেকে এই কর্মসূচীর ৫০ বস্তা চাউল উদ্ধার করা হয়েছিলো। ওই ঘটনায় বসন্তপুর ইউনিয়নের নিযুক্ত ট্যাগ অফিসার ও সদর উপজেলার সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নৃপেন্দ্রনাথ সরকার বাদী হয়ে বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর সাংস্কৃতিক সংগঠন রাজবাড়ী জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব তালুকদার (৩২), সদর উপজেলার শহীদওহাবপুর ইউনিয়নের গৌরিপুর গ্রামের মোঃ আলী শেখের ডিলার ছেলে ও একই ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান শেখ (৩৫) এবং সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নের মহারাজপুর গ্রামের মোঃ হোসেন সেখের ছেলে মোঃ শাহিন শেখ (৩২)।
সে মামলার আসামি শহীদওহাবপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও একই ইউনিয়নের প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ তহবিল থেকে প্রাপ্ত দরিদ্র বান্ধব কর্মসূচীর ১০ টাকা কেজি চাউল বিক্রয়কারী ডিলার মতিউর রহমান শেখ জানান, উদ্ধার হওয়া ৫০ বস্তা চাউল তার নয়। তিনি ডিলার হলেও মূলত পরিচালনা করেন, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর সাংস্কৃতিক সংগঠন রাজবাড়ী জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব তালুকদার। বিগত মাসে তার নামে বরাদ্দ হওয়া ১৯ টন ৮০ কেজি চাউল উত্তোলনে তার কোন স্বাক্ষর না থাকলে খাদ্য গুদাম থেকে রাজিব তালুকদার ওই চাউল উত্তোলন করেছেন। রাজিব ইতোপূর্বে সংরক্ষিত মহিলা আসনের একজন সাবেক পিএস হিসেবে কাজ করতো। সে সময় ওই এমপির নাম ভাঙ্গয়ে তার ডিলারশীপসহ সদর উপজেলার খানখানাপুরের জনৈক রতন শীল এবং তার নিজ ইউনিয়ন শহীদওহাপুরে রাজিবের ভাই শফিউল তালুকদারের নামে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ তহবিল থেকে প্রাপ্ত দরিদ্র বান্ধব কর্মসূচীর ১০ টাকা কেজি চাউল বিক্রির ডিলারশীপ নিয়েছেন।

(Visited 111 times, 1 visits today)