রাজবাড়ীতে খাদ্য অধিকার আইনের দাবিতে আলোচনা সভা –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ীতে আজ বুধবার সকালে আলোচনা সভা, শোভাযাত্রা ও প্ররাচণাপত্র বিলি, সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি প্রদানের মাধ্যমে বিশ্ব খাদ্য দিবস পালিত হয়েছে। ‘ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ বির্নিমাণে সবার জন্য পর্যাপ্ত ও পুষ্টিকর খাদ্য চাই’ স্লোগান সামনে রেখে খাদ্য অধিকার বাংলাদেশ রাজবাড়ী জেলা কমিটির উদ্যোগে এসব কর্মসূচি পালিত হয়।
কর্মসূচি পালন উপলক্ষে সকালে শহরের এক নম্বর বেড়াডাঙ্গায় রেডক্রিসেন্ট প্লাজায় আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন খাদ্য অধিকার বাংলাদেশের রাজবাড়ী জেলা কমিটির সদস্য ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আবদুল জব্বার।
সংগঠনের আহ্বায়ক সহকারী অধ্যাপক শামীমা আক্তার মুনমুনের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য দেন জেলা পরিষদের সদস্য কহিনুর বেগম, আইনজীবী আবুল কালাম আযাদ, সমপদের নির্বাহী পরিচালক হেলাল উদ্দিন, প্রথম আলো রাজবাড়ী বন্ধুসভার সাধারণ সম্পাদক নাহিদুল ইসলাম ফাহিম নারী অংগনের সভানেত্রী সান্তনা বিশ্বাস, দরিদ্র মানব কল্যাণ সংস্থার প্রকল্প পরিচালক সেলিম আহমেদ প্রমূখ।
সভায় বক্তারা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে ডাকে একটি ক্ষুধামুক্ত দেশ গড়ার লক্ষে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিলো। দেশ অনেকক্ষেত্রে এগিয়ে গেছে। আমাদের জীবনমান উন্নত হয়েছে। কিন্তু এখনো আমাদের স্বপ্ন পুরোপুরি বাস্তবায়িত হয়নি। খাদ্যকে মৌলিক চাহিদা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হলেও খাদ্যকে অধিকার হিসেবে সংবিধানে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। খাদ্যকে অধিকার হিসেবে স্বীকৃতি দিতে হবে। খাদ্য অধিকার আইন করতে হবে।
আলোচনা শেষে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রায় ‘সবার জন্য খাদ্য চাই খাদ্য অধিকার আইন চাই, খাদ্যে ভেজাল দেয় যারা জনগণের শত্রু তারা, নিরাপদ খাদ্য চাই খাদ্য অধিকার আইন চাই, দারিদ্রের খাদ্য ও পুষ্টির নিশ্চয়তা চাই, ক্ষুদ্র কৃষকদের চারা-বীজ ও সার সহায়তা দিতে হবে, আটা-ডাল-তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম কমাতে হবে, সবার জন্য পর্যাপ্ত ও পুষ্টিকর খাদ্য নিশ্চিত কর ক্ষুধামুক্ত দেশ গড়’ প্রভৃতি স্লোগান লেখা প্লাকাড বহন করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে শহরের ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রচারপত্র বিলি করা হয়। অত:পর সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসকের নিকট খাদ্য অধিকার আইন প্রণয়নের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

(Visited 25 times, 1 visits today)