প্রেমে বাঁধা – রাজবাড়ীতে মেয়ের বিরুদ্ধে মাকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

প্রেমে বাঁধা দেয়ার ঘটনায়ে রাজবাড়ীতে মেয়ের বিরুদ্ধে মাকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রাজবাড়ী সদর উপজেলার দাদশী ইউনিয়নের আগমাড়াই গ্রামে। এ ঘটনায় পুলিশ মেয়েকে গ্রেপ্তার করেছে। নিহতের নাম নাজনিন আক্তার (৪৫)। নাজনিনের স্বামীর নাম মান্নান মৃধা। আর মেয়ের নাম বৃষ্টি খাতুন (১৫)।
বৃষ্টি স্বজন সবুজ প্রমানিক বলেন, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় একটি বিয়ে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে কনের বাড়ীতে ছিলো পরিবারে প্রায় সকলে। এরই মাঝে রাত সাড়ে ৭টার দিকে বৃষ্টির মা নাজনিন আক্তার আহত হাবার খবর পান। পরে তারা রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ছুটে যান। সে সময় হাসপাতালের চিকিৎসক নাজনিনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরে তারা তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। তবে সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। তারা তাকে নিয়ে মানিকগঞ্জ এলাকায় পৌছতেই রাত সাড়ে ১২টার দিকে নাজনিন মারা যান। পরে তারা মরদেহ বাড়ীতে নিয়ে আসেন। নাজনিন এক ছেলে ও এক মেয়ে সন্তানের জননী। এ ঘটনা পর আজ শনিবার সকালে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নাজনিনের মেয়ে বৃষ্টি খাতুনকে আটক করে।তবে সে বিকালের দিকে আসে মাকে হত্যারকথা স্বীকার করে।
রাজবাড়ীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রেজাউল করিম জানান, বৃষ্টির সাথে মাসুদ নামে এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। গত শুক্রবার বিকালে বৃষ্টি’র সাথে মুঠোফোনে প্রেমিক মাসুদের সাথে ঝগড়া। এ কারণে বৃষ্টি মন খারাপ ছিলো। সে সময় তার মা তাকে ওই প্রেমের বিষয় নিয়ে বাজে কথা বলে। এক পর্যায়ে বৃষ্টি ঘরের দরোজা আটকিয়ে ধারালো বটি দিয়ে মাথা, কপাল ও হাত কুপিয়ে মারাতœকভাবে জখম করে। এতে তার মৃত্য হয়।

(Visited 4,327 times, 1 visits today)