৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণের দায়ে কালুখালীতে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র গ্রেপ্তার –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 

রাজবাড়ীর কালুখালীকে চার বছর বয়সী এক শিশু ধর্ষণের শিকার হবার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই অভিযোগের আজ মঙ্গলবার সকালে শিশুটির মা বাদী হয়ে কালুখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
মামলায় জেলার কালুখালী উপজেলার মাঝবাড়ী ইউনিয়নের পাচুরিয়া গ্রামের কুদ্দুস কাজীর ছেলে রাকিব কাজী (১৪)। সে বেথুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র।
ওই ছাত্রীর মা বলেন, গত ১ জুলাই দুপুরে রাকিব কাজীর বাড়ীতে যায় তার শিশু মেয়ে। রাকিবেরও তার মেয়ের মত সুমাইয়া নামে একটা ছোট বোন আছে। সুমাইয়ার সাথে খেলা করার লক্ষেই তার শিশু মেয়ে রাকিবের বাড়ীতে যায়। তবে সে সময় রাকিবের ছোট বোন সুমাইয়া বাড়ীতে ছিলো না। যদিও রাকিবের বড় বোন সুমি ওই সময় শিশু মেয়েকে খাবার খাইয়ে দেয়। এক পর্যায়ে তার শিশু মেয়েকে ওই বাড়ীর ঘরের মধ্যে রেখে সুমি অন্যত্র চলে যায়। আর ওই সুযোগে রাকিব মেয়েটিকে ঘরের খাটের উপর নিয়ে ধর্ষণ করে। মেয়েটির চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসলে রাকিব পালিয়ে যায়। পরে অসুস্থ্য অবস্থায় শিশু মেয়েকে উদ্ধার করে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে গত কয়েক দিন ধরে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা নানা রকম তৎপড়তা চালায়। তবে তা মিমাংশা না হওয়ায় তিনি বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা শিশু ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।
এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও কালুখালী থানার এসআই আবু শহীদ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাকিবকে গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল দুপুরে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে শিশু মেয়েটির ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পূন্ন করা হয়েছে। সেই সাথে রাজবাড়ীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট লাবনী আক্তারের কাছে মেয়েটির জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে। অপরদিকে, আজ বিকালে একই আদালতের কাছে রাকিব কাজী স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী প্রদান করেছে। আদালত তাকে গাজীপুর জেলার টঙ্গীতে অবস্থিত কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে রাকিবকে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

(Visited 124 times, 1 visits today)