বহরপুরে টিকিটের ফুটবল খেলার অনুমতি না ডিসি’র কাছে আবেদন –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের বাড়াদী বহরপুর রেলওয়ে ফুটবল মাঠে বিএনবিএস কর্তৃক আয়োজিত আসন্ন আন্তঃজেলা ফুটবল টুর্ণামেন্ট ২০১৯ এর কমিটি গঠন করা হয়েছে।
কমিটি গঠন করার সময় স্থাণীয় লোকজনদেরকে একত্রিত করা হলে সেখানে টিকিট কেটে খেলার বিপক্ষে অনেকেই অবস্থান গ্রহণ করেন। সেটাকে উপক্ষো করে বিএনবিএস কাজী সাহিদুল ইসলাম সাহিদকে সভাপতি ও আবুল কালাম আজাদকে সাধারন সম্পাদক করে কমিটি গঠন করা হয়। এর প্রেক্ষিতে বিপক্ষ দল টিকিট কেটে খেলার বিপক্ষে অবস্থান গ্রহণ করে। এতে করে এলাকায় দু‘গ্রুপেরর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।
এলাকার লোকজন বলেন, ইতিপূর্বে বিএনবিএস কর্তৃক আয়োজিত যতগুলো খেলা হয়েছে তার কোনটিরই সুষ্ঠ হিসাব নিকাশ অদ্যাবধী হয়নি। বারবারই কমিটির কর্তাব্যক্তিরা এই খেলার অর্থ ছয় নয় করেছেন। এর পেক্ষিতে এলাকার কোন লোকই এই টাকার খেলার পক্ষে নয়। সম্প্রতি বিএনবিএস জুনিয়র গ্রুপ উপজেলা ভিত্তিক ফুটবল টুর্ণামেন্ট কোন প্রকার টিকিট বিহিন সুন্দরভাবে খেলা উপহার দিয়েছেন। যার জন্য এবারও সচেতন মহল টিকিট বিহিন খেলার জন্য মিটিং এ বক্তব্য রাখেন। অথচ বর্তমান কমিটির কর্মকর্তাগণ তাদেরকে উপেক্ষা করেই এই খেলার আয়োজন করতে যাচ্ছে। এলাকায় বলে কোন ফয়দা না পাওয়ায় সম্প্রতি টিকিটের খেলার অনুমতি না দিতে বহরপুর বাজার পরিচালনা পরিষদের উপদেষ্টা মোঃ মজিবর রহমান ও বহরপুর শ্রমিক ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রমিকবৃন্দ স্বাক্ষরিত আবেদন পত্র প্রদান করেন। আবেদনে বলা হয় বর্তমানে দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। যা এখনো চলমান। রাজবাড়ী জেলার অনেক স্থানে পানিতে তলিয়ে গেছে শত শত ঘরবাড়ী ফসলি মাঠ। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে হাজার হাজার মানুষ। এই মুহুর্তে টিকিট কেটে খেলার আয়োজন করলে ,এলাকাগুলোতে আইন শৃংঙ্খলার চরম অবনতি হতে পারে। দেশের আইন শৃংঙ্খলা পরিস্থিতি সুন্দর রাখতে এই খেলার অনুমতি না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন এলাকার মানুষ।
মঙ্গলবার টিকিটে খেলার বিপক্ষে বহরপুর বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মোঃ আবুল কালাম বিশ্বাস জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন দিয়েছেন। বর্তমানে এই খেলার পক্ষে বিপক্ষে দু‘টি গ্রুপ শক্ত অবস্থানে রয়েছে। টিকিট কেটে খেলার আয়োজন করা হলে সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। তবে বহরপুর, বাড়াদী, নারায়নপুর ও শেকাড়া গ্রামের সাধারন খেটে খাওয়া মানুষের চাওয়া এই সময়ে এখানে টিকিটের খেলা না হয় তার জন্য প্রশাসন যেনো প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

(Visited 307 times, 1 visits today)