ডিসি সম্মেলনে রাজবাড়ীর ‘সমস্যা ও সম্ভাবনার’ কথা তুলে ধরবেন জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 

জেলা প্রশাসক সম্মেলন, ২০১৯ সহ অন্যান্য কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের জন্য রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম ১৩-২১ জুলাই, ২০১৯ তারিখ ঢাকায় অবস্থান করবেন। এবারের জেলা প্রশাসক সম্মেলন, ২০১৯ এ তিনি রাজবাড়ীর সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরবেন। জেলা প্রশাসক সম্মেলন চলাকালীন তিনিসহ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী সকল বিভাগীয় কমিশনার এবং জেলা প্রশাসকবৃন্দ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মহামান্য রাষ্ট্রপতি, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের মাননীয় প্রধান বিচারপতি, তিন বাহিনী প্রধান এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের মাননীয় স্পীকার মহোদয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ/বৈঠক করবেন।
রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম আগামী ১৪-১৮ জুলাই, ২০১৯ অনুষ্ঠিতব্য জেলা প্রশাসক সম্মেলন, ২০১৯ উপলক্ষে ১৩ জুলাই, ২০১৯ তারিখ শনিবার দুপুর ২:৩০ ঘটিকায় বাংলাদেশ সচিবালয়স্থ মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের আয়োজনে অনুষ্ঠিতব্য এক ব্রিফিং সভায় অংশগ্রহণ করবেন।
আগামী ১৪ জুলাই, ২০১৯ তারিখ রবিবার সকাল ৯ ঘটিকায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন করবেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর ঐদিন জেলা প্রশাসক সম্মেলনের ১ম দিবসে মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে দুপুর ০২:৩১ হতে বিকেল ০৪:০০ পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ৫ টি, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ৬টি, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ৬টি, বিকেল ০৪:০১ হতে বিকেল ০৫:০০ পর্যন্ত পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের ৭ টি, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের ১০ টি প্রস্তাব উপস্থাপিত হবে।
২য় দিবস ১৫ জুলাই, ২০১৯ তারিখ সকাল ০৮:৪৫ হতে ০৯:৪৫ পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের ১টি, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের ২ টি, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের ১টি, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের ১ টি, অর্থ বিভাগের ২টি, পরিকল্পনা বিভাগের ২টি, সকাল ০৯:৪৬ হতে ১০:৪৫ পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিভাগের ৬ টি, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের ২টি, বেলা ১১:০১ হতে দুপুর ১২:৩০ পর্যন্ত মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের ১৫ টি, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগর ৪ টি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ১০টি, দুপুর ১২:৩১ হতে ০১:৩০ পর্যন্ত সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ৭টি, তথ্য মন্ত্রণালয়ের ৪টি, বিকেল ০৩:৩০ হতে ০৫:৩০ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সম্পর্কিত ৭টি প্রস্তাব উপস্থাপিত হবে। অধিবেশনের ২য় দিন সন্ধ্যা ৭:৩০ হতে রাত ০৯:০০ পর্যন্ত বঙ্গভবনে মহামান্য রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হবে।
৩য় দিবসে অর্থাৎ ১৬ জুলাই, ২০১৯ সকাল ০৮:৪৫ হতে ০৯:৪৫ পর্যন্ত খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ৬টি, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ৮টি, সকাল ০৯:৪৬ হতে ১০:৪৫ পর্যন্ত পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ১৮টি, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের ৯ টি, বেলা ১১:০১ হতে দুপুর ১২:১৫ পর্যন্ত বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ৩টি, শিল্প মন্ত্রণালয়ের ১০টি, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ৩টি, দুপুর ১২:১৬ হতে ০১:১৫ পর্যন্ত প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ৪টি, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ২টি, দুপুর ০২:১৬ হতে বিকেল ০৩:১৫ পর্যন্ত আইন ও বিচার বিভাগের ১০টি প্রস্তাব উপস্থাপিত হবে। অধিবেশনের ৩য় দিন বিকেল ০৪:৩০ হতে ০৫:০০ পর্যন্ত বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টে মাননীয় প্রধান বিচারপতি মহোদয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হবে।
৪র্থ দিবসে অর্থাৎ ১৭ জুলাই, ২০১৯ সকাল ০৮:৪৫ হতে ০৯:৪৫ পর্যন্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ১টি, সকাল ০৯:৪৬ হতে ১০:৪৫ পর্যন্ত স্থানীয় সরকার বিভাগের ২৯ টি, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের ২টি, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ১টি, বেলা ১১:০১ হতে দুপুর ১২:০০ পর্যন্ত সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের ১০টি, সেতু বিভাগের ১ টি, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের ৯টি, দুপুর ১২:০১ হতে ০১:০০ পর্যন্ত স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের ৭ টি, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের ২টি, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ৩ টি, দুপুর ০২:০১ হতে বিকেল ০৩:০০ পর্যন্ত ভূমি মন্ত্রণালয়ের ২০টি, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের ২টি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ৫টি, বিকেল ০৪:০১ হতে বিকেল ০৫:০০ পর্যন্ত কৃষি মন্ত্রণালয়ের ৭টি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ১০টি, বিকেল ০৫:০১ হতে ০৬:১৫ পর্যন্ত গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ৭টি, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ১টি প্রস্তাব উপস্থাপিত হবে। উল্লেখ্য, ১৭ জুলাই, ২০১৯ তারিখ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে সকাল পৌনে ৯টায় তিন বাহিনী প্রধানের সঙ্গে জেলা প্রশাসকগণ বৈঠক করবেন।
৫ম দিবসে অর্থাৎ ১৮ জুলাই, ২০১৯ সকাল ০৮:৪৫ হতে ০৯:৪৫ পর্যন্ত জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ২৬টি, সকাল ০৯:৪৬ হতে ১০:৪৫ পর্যন্ত জননিরাপত্তা বিভাগের ৫ টি, সুরক্ষা সেবা বিভাগের ১১টি, সকাল ১০:৪৬ হতে বেলা ১১:৩০ পর্যন্ত মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ৩ টি প্রস্তাব উপস্থাপিত হবে। ৫ম দিবসে বেলা ১১:৪১ হতে দুপুর ০১:০০ পর্যন্ত সমাপন অনুষ্ঠানের পর ঐ দিন বিকেল ০৪:০০ হতে বিকেল ০৫:০০ পর্যন্ত বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনে মাননীয় স্পীকার মহোদয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হবে।
১৮ জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে শেরেবাংলা নগরস্থ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিতব্য বাংলাদেশ এ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়শের বার্ষিক সম্মিলন-২০১৯ এ অংশগ্রহণ করবেন।
জেলা প্রশাসক সম্মেলন সমাপনের পরের দিন অর্থাৎ ১৯ জুলাই, ২০১৯ সকাল ০৮:৩০ ঘটিকায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের উদ্যোগে শেরেবাংলা নগরস্থ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের উইন্ডি টাউন হল রুমে ‘উদ্ভাবনী অগ্রযাত্রায় আমার গ্রাম-আমার শহর’ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে।
সম্মানিত জেলা প্রশাসক মহোদয় আগামী ২১ জুলাই, ২০১৯ তারিখ নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বিদ্যুৎ ভবনের বিজয় হলে ফেরি সার্ভিস ও লঞ্চসহ জলযানসমূহের সুষ্ঠু চলাচল, যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণসহ যথাযথ কর্মপন্থা প্রণয়নের লক্ষ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব খালেদ মাহমুদ চৌধুরী,এমপি মহোদয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিতব্য সভায় অংশগ্রহণ করবেন।
উল্লেখ্য, সরকারের নীতিনির্ধারক ও জেলা প্রশাসকদের মধ্যে সরাসরি মতবিনিময় এবং প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেয়ার জন্য প্রতি বছর তিনদিনব্যাপী জেলা প্রশাসক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এবারই প্রথমবারের মতো পাঁচদিন ব্যাপী জেলা প্রশাসক সম্মেলন শুরু হতে যাচ্ছে। এবার অন্যন্য মন্ত্রণালয় ও বিভাগের পাশাপাশি সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আলাদা অধিবেশন সংযুক্ত থাকবে। সর্বমোট ২৯টি অধিবেশনের মধ্যে ২৪টি কার্য অধিবেশন হবে । অংশগ্রহণকারী মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সংখ্যা ৫৪টি। সবচেয়ে বেশি প্রস্তাব এসেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে ২৯টি। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ২৬টি এবং ভূমি মন্ত্রণালয়ের ২০টি। এবারই প্রথম প্রধান বিচারপতির সাথে সুপ্রিম কোর্টে জেলা প্রশাসকরা একটি অধিবেশনে যোগ দেবেন। এবার জেলা প্রশাসক সম্মেলনে প্রথমবারের মতো প্রধান বিচারপতি, তিন বাহিনী প্রধান, জাতীয় সংসদের স্পিকারের সঙ্গে ডিসিদের বৈঠক হতে যাচ্ছে। জেলা প্রশাসক সম্মেলনের অধিবেশনগুলো হবে মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে। কার্যঅধিবেশনগুলোতে সভাপতিত্ব করবেন মাননীয় মন্ত্রিপরিষদ সচিব।কার্যঅধিবেশনগুলোতে মন্ত্রণালয় ও বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সিনিয়র সচিব ও সচিবরা উপস্থিত থাকবেন।
জেলা প্রশাসক সম্মেলন, ২০১৯ ও অন্যান্য কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম আজ ১২ জুলাই অপরাহ্ণে রাজবাড়ী হতে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছেন এবং তিনি আগামী ১৩-২১ জুলাই, ২০১৯ তারিখ ঢাকায় অবস্থান করবেন।

(Visited 55 times, 1 visits today)