পদ্মা সেতু নির্মাণ নিয়ে গুজব ছড়ানোর ঘটনায় পাংশার স্কুল ছাত্র কারাগারে –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 

“পদ্মা সেতু নির্মাণে মানুষের মাথা লাগবে” সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন গুজব ছড়ানোর দায়ে গ্রেপ্তার হওয়া মোঃ পার্থ আল হাসান (১৪) নামে এক ছাত্রকে আজ শুক্রবার কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ এর ২৫/৩১ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়।
পাংশা থানার ওসি মোঃ আহসানুল্লাহ জানান, রাজবাড়ীর জেলার পাংশা উপজেলার পাট্টা ইউনিয়নের বয়রাট গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে ও স্থানীয় মাজাইল বিএমডি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র মোঃ পার্থ আল হাসানকে র‌্যাব সদস্যরা গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে পাংশা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। সেই সাথে র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্পের পক্ষ থেকে পার্থ আল হাসানের বিরুদ্ধে তার থানায় মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলায় পার্থ’কে গ্রেপ্তার এবং গতকাল শুক্রবার সকালে পার্থকে রাজবাড়ীর আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদাল তার জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করে আদালতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
উল্লেখ্য, র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্পের সদস্যরা, র‌্যাব-৮ এর সাইবার মনিটরিং সেল কিছু দিন আগে সামাজিক যোগাযোগের কাজে ব্যবহৃত একটি ফেইসবুক আইডি সনাক্ত করে। আইডিটির কার্যক্রম পর্যবেক্ষনের মাধ্যমে দেখা যায় ওই আইডি ব্যবহারকারী রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে গুজব সৃষ্টি করে জনমানুষের মধ্যে ভীতি সঞ্চারসহ আইন শৃংখলা পরিপন্থী কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। সম্প্রতি “পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ পরিচালনায় মানুষের মাথা লাগবে” যা দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে একটি চক্র মানুষের মাথা কেটে নিয়ে যাচ্ছে বলে ওই ফেইসবুক আইডি থেকে গুজব রটানো হয়েছে। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয় এবং তা জনমনে মারাত্মক ভীতি সঞ্চার করেছে। ওই ঘটনায় র‌্যাব সদস্যরা গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রাখে এবং গোয়েন্দা তথ্যর ভিত্তিতে গত বৃহস্পতিবার ভোরে পার্থর বাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সেই সাথে গুজব ছড়ানোর কাজে ব্যবহৃত মোবাইল সেটটিও জব্দ করা হয়।

(Visited 78 times, 1 visits today)