বুদ্ধিপ্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের অভিযোগ –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম : 

রাজবাড়ীতে এক বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী (২২) নারীকে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ফলে আট মাসের অন্তসত্বা হবার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই অভিযোগে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ওই নারীর বোন বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।
মামলার আসামিরা হলো, রাজবাড়ী সদর উপজেলার মুকুনদিয়া গ্রামের রওশন মীরের ছেলে মিন্টু মীর (২৮) এবং শাজাহান মীরের স্ত্রী বিউটি বেগম (৪০)।
মামলার বাদী জানান, তার বোন জন্মগত ভাবে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। তবে সে স্বাভাবিক মানুষের মত কিছু কিছু কথা বলতে পারে। আট মাস আগে এক দিন বিকালে তার প্রতিবন্ধী বোন আসামি বিউটির বাড়ীর সামনে নিয়ে যাবার সময় বিউটি ডেকে তাকে বাড়ীর মধ্যে নেয়। সে সময় বিউটি তার চাচাতো দেবর মিন্টুকে মোবাইল ফোনে ডেকে আনেন। এক পর্যায়ে প্রতিবন্ধী মেয়েটিকে বিউটি তার বাড়ীর একতলা ভবনের ছাদের সিঁড়ি ঘরে নিয়ে যায়। ওই ঘরে মিন্টুও আসে। সে সময় মিন্টুকে প্রতিবন্ধী মেয়েটির সাথে রেখে বিউটি চলে যায়। আর ওই সুযোগে মিন্টু মেয়েটিকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। এর পর মিন্টু এবং বিউটি ঘটনাটি কাউকে বলতে নিষেধ করে। বললে তাকে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে ভয় দেখায়। যে কারণে মেয়েটি আর কাউকে ঘটনাটি বলেনি।
ওই প্রতিবন্ধী মেয়ের ভাই জানান, সাম্প্রতি তার প্রতিবন্ধী বোনের হাঁটাচলা অসংগতি দেখেন পরিবারের সদস্যরা। তাই তারা তাকে একটি ক্লিনিকে নিয়ে যান বোনকে। সেখানে একাধিক পরীক্ষায় ধরা পরে মেয়েটি ৮ মাসের গর্ভবর্তী। ওই সময় মেয়েটি তাদের বিউটির সহযোগিতায় মিন্টুর ধর্ষণ করার বর্ণনা দেয়। বিষয়টি এলাকার মাতব্বরদের অবহতি করা হলে তারা তাদের থানায় মামলা দায়ের করার জন্য বলেন। সে কারণে তারা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। তিনি আরো বলেন, মিন্টু একজন দুষ্টুপ্রকৃতির ছেলে। তার স্ত্রী ও একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। সে ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা চালায়।
এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও রাজবাড়ী থানার এসআই এনছের আলী বলেন, ইতোমধ্যেই ঘটনার তদন্ত কাজ শুরু করা হয়েছে। সেই সাথে আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

(Visited 121 times, 1 visits today)