ধর্ষকের আত্নসমর্পন! –

সোহেল রানা, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে ষষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে (১২) ধর্ষণ করার অভিযোগে করা মামলায় আসামী ইউনুছ মিয়া আদালতে আত্নসমর্পন করেছে।গত বুধবার সে রাজবাড়ী আদালতে আত্নসমর্পন করলে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
গত ১০ এপ্রিল রাতে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বালিয়াকান্দি থানায় উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের শ্রীরাম বেতেঙ্গা গ্রামের মৃত আফজাল মিয়ার ৩ পুত্র সন্তানের জনক ছেলে ইউনুস মিয়া ওরফে ইল্লোছ মিয়া (৫৫) কে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।
ওই ছাত্রীর বাবা জানান, গত ২ এপ্রিল বিকাল ৫.১০টায় তার মেয়ে (১২) ছাগলের জন্য কাচি ও ডিস নিয়ে ঘাস আনতে যাচ্ছিল। সে সময় বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের শ্রীরাম বেতেঙ্গা গ্রামের মৃত আফজাল মিয়ার ৩ পুত্র সন্তানের জনক ছেলে ইউনুস মিয়া ওরফে ইল্লোছ মিয়া (৫৫) মেয়েটির কাছে জানতে চায় কোথায় যাস। সে বলে ঘাস কাটতে যাচ্ছি। তখন বলে পান বরজের মধ্যে ঘাস আছে নিয়ে যায়। তার কথায় পান বরজের মধ্যে গেলে জোরপূর্বক মেয়েটির জামা-কাপড় ছিড়ে ফেলে ধর্ষণ করে। সে চিৎকার করলে ইল্লোছ মিয়া তার হাতে থাকা কাচি দিয়ে মেয়েকে ভয় দেখায়। তবে বাড়ীতে যাবার পর তার মা বিষয়টি বুঝতে পারে এবং ঘটনার দুই দিন পর তার ওই মেয়ে ও শিশু দুই ছেলেকে নিয়ে তার স্ত্রী বাবার বাড়ী চলে যায়। সেখানে যাবার পর মেয়েকে চিকিৎসা করায়। এর কয়েক দিন পর স্ত্রী ও ছেলে মেয়েরা বাড়ী ফিরে আসে। তবে বাড়ী ফিরে আসার পর পরই তার স্ত্রী মেয়েকে রেখে দিুই ছেলেকে নিয়ে নিখোঁজ হয়। এর পর থেকে তার মেয়েটি শুধুই কান্নাকাটি করতে থাকে। ৮ এপ্রিল মেয়ের কান্না দেখে তার চাচিরা কারণ জানতে চায়। তখন মেয়েটি বলে তাকে ইল্লোছ ধর্ষণ করেছে। মেয়েটির চাচি বলেন, মেয়েটির কাছ থেকে ওই সব কথা জানার পর পর তারা হতবাগ হন। এর পর মেয়েকে নিয়ে মেয়ের স্কুলে যান এবং স্কুলের প্রধান শিক্ষককে তারা পুরো ঘটনা খুলে বলেছেন। প্রধান শিক্ষক তাদের থানায় অভিযোগ করতে বলেছেন। তিনি আরো বলেন, তারা ঘটনাটি জানার পর মেয়ের ভবিষ্যতের কথা ভেবে খানিকটা গোপন রাখার চেষ্টা চালান। তবে এখন পুরো এলাকায় ঘটনাটি ছড়িয়ে গেছে। তারা সমাজে মুখ দেখাতেও পার ছেন না। তারা লম্পট ইল্লুর বিচার দাবী করেন।
বালিয়াকান্দি থানার একেএম আজমল হুদা জানান, ওই মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। ধর্ষিতা ছাত্রীকে উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে মেডিকেল পরীক্ষা করানো হয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস,আই বদিয়ার রহমানের তৎপরতার কারণে আসামী ইউনুছ আলী বুধবার রাজবাড়ী আদালতে আত্মসমর্পন করেছে।

(Visited 221 times, 1 visits today)