রাজবাড়ীতে গুলি বর্ষণ করে প্রাণে বাঁচলেন ঢাকার ব্যবসায়ী ও তার ছেলে, গাড়ী ভাংচুর –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজবাড়ীতে রাজধানী ঢাকার ইসলামপুর এলাকার এক কাপড় ব্যবসায়ী ও তার ছেলেকে বেধরক মারপিট করা হয়েছে। সেই সাথে ওই ব্যাবসায়ী সদ্য কেনা একটি প্রাইভেটকাও ভাংচুর করা হয়েছে। তবে ওই ব্যবসায়ী নিজের লাইসেন্স করা পিস্তল দিয়ে একাধিক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন বলে জানাগেছে।
রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ওসি আবু শহিদ জানান, রাজধানীয় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসে দুইটি প্রাইভেটকার। ওই কার দু’টি আজ সোমবার সকাল ১০টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহা-সড়কের রাজবাড়ী সদর উপজেলার গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় পৌছায়। সে সময় পেছন থেকে ভাড়ায় চালিত একটি প্রাইভেটকার চালক শেরপুরের ওমর ফারুক (৩০) সদ্য কেনা রাজধানী ঢাকার ইসলামপুর এলাকার এক কাপড় ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান (৫৫) প্রাইভেটকারটিকে আঘাত করেন। এতে হাবিবুর রহমান তার গাড়িটি থামান এবং তিনি ভাড়ায় চালিত প্রাইভেটকারের গতিরোধ করেন। এক পর্যায়ে হাবিবুর রহমানের গাড়ীতে থাকা তার ছেলে ফাহিম (২২) বেরিয়ে আসেন এবং ওমর ফারুকের সাথে বিতর্কে জড়িয়ে পরেন। সে সময় ফাহিম ভাড়ায় চালিত প্রাইভেটকারের চালক ওমর ফারুককে মারপিট করে। বিষয়টি লক্ষ করে স্থানীয়রা এগিয়ে আসে এবং তারা ফহিমকে আর মারপিট করতে নিষেধ করে। এক পর্যায়ে স্থানীয় জনতা ফহিম ও তার বাবা হাবিবুর রহমানকে গণপিটুনি দেয়ার পাশাপাশি তাদের সদ্য কেনা প্রাইভেটকারটির গ্লাস ভাংচুর করে। সে সময় হাবিবুর রহমান তার কাছে থাকা একটি পিস্তল থেকে একাধিক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। এতে স্থানীয়রা তাদের ছেড়ে দিয়ে চলে যায়। পরে আহলাদীপুর হাইওয়ে থানার সদস্যরা ওই দু’টি প্রাইভেটকারসহ চালক ওমর ফারুক, ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান ও তার ছেলে ফাহিমকে আটক করে সদর উপজেলার খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সদস্যদের হাতে তুলে দেয়।
তিনি আরো জানান, হাবিবুর রহমান নিজেই তার গাড়ি চালাচ্ছিলেন। তাছাড়া যখন স্থানীয়রা তাদের উপর হামলা চালানোর পাশাপাশি গাড়ী ভাংচুর শুরু করে তখন প্রাণ রক্ষার্থে হাবিবুর রহমান তার কাছে থাকা পিস্তল দিয়ে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে। ফলে মারপিটকারীরা তাদের ছেড়ে চলে যান। তবে ফাঁকা গুলি বর্ষণ না করলে খারাপ কোন ঘটনাও ঘটার সম্ভবনা ছিলো।
রাজবাড়ী থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, হাবিবুর রহমানের পিস্তলটি বৈধ। ঘটনাস্থল থেকে একটি গুলির খোশা উদ্ধার করা হয়েছে। সেই সাথে প্রাইভেটকারসহ চালক ওমর ফারুক ও ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমানের ঘটনা বিরোধ তারা নিচেরাই নিস্পত্তি করে নেয়ায় মুচলেকা রেখে দু’পক্ষকেই ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

(Visited 1,504 times, 1 visits today)