মা ইলিশ ধরার অপরাধে রাজবাড়ীতে ৪৯ জেলের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

৭ অক্টবর থেকে ২৮ অক্টবর এই ২২ দিন নদীতে ইলিশ মাছ ধরা বন্ধ। তারপরও জেল জরিমানার তোয়াক্কা না করে প্রতিদিন দেদারছে ইলিশ মাছ ধরতে পদ্মা নদীতে নামছে জেলেরা। সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাজবাড়ীর পদ্মা নদীতে মা ইলিশ মাছ ধরার অপরাধে শুক্রবার ১৩ তম দিনের অভিযানে ৪৯ জন জেলেকে আটকের পর বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার বেলা ১২ টা পর্যন্ত এ অভিযানের পর ৪৯ জন জেলেকে আটকের পাশাপাশি ৩০০ কেজি ইলিশ মাছ ও ২লাখ ৬০ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়।
জব্দকৃত ইলিশ মাছ জেলার বিভিন্ন এতিমখানা ,মাদ্রাসা ও দুস্থ্য মানুষদের মাঝে বিতরন করা হয়। পরে কারেন্ট জাল আগুনে পুড়িয়ে ভস্মিভূত করা হয়।
ইলিশের প্রজনন মৌসুমে নদীতে ইলিশ মাছ ধরার অপরাধে এবং সরকারী আদেশ অমান্য করায় (১৮৮ ধারায়) ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ৩৪ জেলেকে ১৫ দিন,এবং ১৫ জেলেকে ১২ দিন করে কারাদন্ড প্রদান করে এ আদালত ।
শুক্রবার ১৩ তম দিনের অভিযানে রাজবাড়ী সদরে ১৫ জন জেলেকে আটক ও ১০ কেজি মাছ ও ১৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল, পাংশায় ১৪ জন জেলেকে আটকের পর ২০০ কেজি মাছ ও ২ লাখ মিটার কারেন্ট জাল, কালুখালীতে ৫ জেলেকে ১৫দিন করে কারাদন্ড ও ৫০কেজি মাছ ১৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল এবং গোয়ালন্দে ১৫ জন জেলে আটকের পর ১২ দিন করে কারাদন্ড ও ৪০ কেজি মাছ ও ৩০ লক্ষ মিটার জাল জব্দ করা হয়েছে।
পাংশায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার রফিকুল ইসলাম, রাজবাড়ী সদর ও গোয়ালন্দে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহ মোঃ সজিব, মোছাঃ দিলশাদ জাহান এবং কালুখালীতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাদিয়া ইসলাম লুনা, গোয়ালন্দে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবায়েত হায়াত সিতু এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। অভিযানে জেলা প্রশাসন, জেলা মৎস্য অধিদপ্তর ও আনসার ব্যাটালিয়ন অংশ গ্রহন করেন।

(Visited 55 times, 1 visits today)