রাজবাড়ী জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতিকে কুপিয়ে জখম –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

মাদক সেবন ও বিক্রিতে বাঁধা দেয়ায় রাজবাড়ী জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জিয়া উদ্দিন রুবেল (২৪) কে কুপিয়ে জখম করেছে দূর্বৃত্তরা। তাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আজ সোমবার সকালে রাজবাড়ী থানায় ৬ জনকে চিহ্নিত করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। রুবেল সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের বেনিনগর গ্রামের শফি উদ্দিন মোল্লার ছেলে এবং রাজবাড়ী সরকারী কলেজের ডিগ্রি শেষ বর্ষের ছাত্র।
মামলার আসামিরা হলো, একই ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের ইসলাম সরদারের ছেলে সাব্বির, আবেদ আলীর ছেলে পিচ্চি আরিফ ও হবি মোল্লার ছেলে রতন মোল্লা এবং বড় চরবেনি নগর গ্রামের আসমত মন্ডলের ছেলে সোহাগ মন্ডল, মনির ছেলে পিয়াল, বিল্লাল মন্ডলের ছেলে সাব্বির মন্ডল।
আজ দুপুরে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের সার্জিক্যাল ওয়ার্ডের কেবিনে ভর্তি থাকা আহত রুবেল বলেন, আসামিরা দীর্ঘ দিন ধরে এলাকায় মাদক সেবন ও বিক্রির কাজ করছে। এতে করে এলাকায় কিশোর ও যুবকদের মাঝে মাদকের বিস্তার হচ্ছে। মাদকের এই ছড়াছড়ি বন্ধ করার জন্য তিনি উদ্যোগ নেন এবং মাদক বিক্রিতা ও সেবানকারীদের এ সব কর্মকান্ড পরিচালনা করতে নিষেধ করেন। এতে আসামিরা ক্ষিপ্ত হন। তারা তার ক্ষতি করতে উঠে পরে লাগে। গত রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তার অসুস্থ্য নানা সেকেন খানকে রাজবাড়ী হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছিলেন। বাড়ী থেকে কিছুটা দুরে আসতেই আসামিরা তাকে ঘিরে ধরেন এবং তাকে বেধড়ক কুপিয়ে জখম করে। ওই সময় তিনি চিৎকার করেন। তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে আসামিরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে মারাতœক আহত অবস্থায় সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
রুবেলের বাবা শফি উদ্দিন মোল্লা জানান, দূর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রে রুবেলের ডান হাতের মাসলে ২০টি এবং কপালে ৯টি সেলাই করা হয়েছে।
রাজবাড়ী হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আলী আহসান বলেন, রুবেলের চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রয়েছে। সে কিছুটা সুস্থ্য হতেও শুরু করেছে।
এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও রাজবাড়ী থানার এসআই মাহবুবুর রহমান জানান, ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

(Visited 1,617 times, 1 visits today)